বিশেষ প্রতিনিধি :
কক্সবাজারের চকরিয়ার ডুলাহাজারায় দাবিকৃত মোটা অংকের চাঁদা না পেয়ে মৎস্যপ্রকল্পের মালিক ও কর্মচারীর ওপর দুই দফা সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় হামলায় ধারালো অস্ত্র ও লোহার রডের আঘাতে গুরুতর আহত হন ঘের মালিক ও কর্মচারী। তাদেরকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স এবং পরে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
হামলার সময় ভাঙচুর করা হয় একটি মোটর সাইকেল এবং ঘের মালিকের কাছ থেকে লুট করা হয় নগদ ১ লক্ষ ১০ হাজার টাকাও। গত শুক্রবার বিকেলে চারটা এবং পরবর্তী সময়ে পৃথক এই হামলার ঘটনাটি ঘটে উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের পাঁচ নম্বর ওয়ার্ডের ষোলহিচ্ছাস্থ মৎস্যপ্রকল্প এবং বালুরচরের নতুন নির্মাণাধীন রেলওয়ে সড়কের পশ্চিমে রেলসেতুর নিচে।
আহতরা হলেন চকরিয়া ডিগ্রী কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ মরহুম শাহাব উদ্দিন চৌধুরীর পুত্র ডুলাহাজারা ইউনিয়নের বৈরাগীরখিল গ্রামের আশফাক উদ্দিন চৌধুরী (৪০) ও সৈয়দ নূরের পুত্র মো. রিদুয়ান (৩০)।
এ ঘটনায় আজ শনিবার বালুরচর এলাকার আবচার, আজিম, নুরুল হোসেন, নুরুল হুদা পুতুসহ সাতজনের নাম উল্লেখ করে এবং আরো ৬ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে থানায় একটি লিখিত এজাহার জমা দেওয়া হয়েছে।
হামলায় আহত মৎস্যপ্রকল্প মালিক আশফাক উদ্দিন চৌধুরীর দাবি- উপরোক্ত ব্যক্তিরা এলাকায় সন্ত্রাসী এবং চাঁদাবাজ প্রকৃতির লোক। তাদের দাবিকৃত ৫ লক্ষ টাকা চাঁদা না দেওয়ায় এই হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে। বর্তমানেও তারা এলাকায় সশস্ত্র মহড়া দিয়ে প্রাশনাশের হুমকি প্রদান অব্যাহত রেখেছে।
তবে এ ব্যাপারে চকরিয়া থানার ওসি শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন, অভিযোগটি তদন্ত করতে একজন অফিসারকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেলে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •