আবদুল মালেক সিকদার, রামু :
রামু খুনিয়াপালং ইউনিয়নের পূর্ব গোয়ালীয়া পাহাড় পাড়া সৈয়দ আলমের মুদির দোকানে সন্ত্রাসী কর্তৃক অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ১১ মার্চ বিকাল ৫ টায় প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনসাধারণ। উক্ত প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নাজনীন সরওয়ার কাবেরী বলেন ,বঙ্গবন্ধুর রাজনীতি শোষণ মুক্ত সমাজ গঠনের অঙ্গীকার, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শোষণমুক্ত সমাজ গঠনে বিভিন্ন দিক নির্দেশনা দিয়েছেন আমরা তা পালন করতে বদ্ধপরিকর। আজকে আমরা দেখতে পাচ্ছি খুনিয়া পালং ইউনিয়নে এক প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতার ইন্ধনে তৃণমূল আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উপর বিভিন্ন নির্যাতন , মামলা মোকাদ্দমা দিয়ে হয়রানি, জায়গা দখল সহ বিভিন্ন অপকর্ম করে যাচ্ছে । আমরা তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি।

তিনি সৈয়দ আলমের মুদির দোকান সন্ত্রাসী কর্তৃক পুড়িয়ে দেওয়ায় রামু থানায় মামলা না নেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় তদন্তপূর্বক সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য পুলিশ প্রশাসনের প্রতি দাবি জানান। এই সময় তিনি আরো বলেন সামনে ইউপি নির্বাচন ডিজিটাল বাংলাদেশ নির্মাণে সুষ্ঠ নির্বাচন উপহার দেওয়ার জন্য সরকারের বিভিন্ন সংস্থার প্রতি আহ্বান জানান। কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন উপজেলায় একশ্রেণীর অসাধু জন প্রতিনিধির কারনে সাধারণ মানুষ নির্যাতিত। সামনে ইউপি নির্বাচনে জনপ্রিয় মানুষ কে তদন্তপূর্বক নৌকার প্রতীক দেওয়ার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানান।প্রতিবাদ সমাবেশে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা তদন্ত পূর্বক আইন গত পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য প্রশাসনের নিকট স্থানীয় জনসাধারণ দাবি জানান।

এই সময় উপস্থিত ছিলেন খুনিয়াপালং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আবদুল হক কোম্পানি, সাধারন সম্পাদক কামাল উদ্দিন, হাজী আবদু রাজ্জাক,আহামুদুল করিম চৌধুরী রুবেল,আলী আহাম্মদ, মুক্তার আহাম্মদ, আবদুল গনি, শাহজাহান সৌরভসহ শত জনসাধারণ ।

উল্লেখ যে ৪ মার্চ (বুধবার) রাত দেড় টার দিকে রামু খুনিয়াপালং পূর্ব গোয়ালিয়া পাহাড় পাড়া এলাকায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সৈয়দ আলম নামে এক ব্যবসায়ীর মুদির দোকান পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •