কুতুবদিয়ার ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত শিশু মীম বাঁচতে চায়। মাত্র ৩ বছর বয়সী শিশু মীম যখন মায়ের কোলে খেলাধুলায় ব্যস্ত থাকার কথা, তখন সে হাসপাতালের বেডে শুয়ে বাঁচার আকুতি জানাচ্ছে। মীম কুতুবদিয়া উপজেলার বড়ঘোপ ইউনিয়নের ০৭ নং ওয়ার্ড’র আজম কলোনী গ্রামের হতদরিদ্র সেলিম উদ্দিন ও রফিকা বেগমের মেয়ে।

জানা গেছে, হতদরিদ্র সেলিম উদ্দিনের ৩জন ছেলে-মেয়ের মধ্যে মীম (৩) ছোট। গত ফেব্রুয়ারি মাসের আগে মীম হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে কক্সবাজার শেভরণে চিকিৎসকদের পরামর্শে কক্সবাজার জেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে মীমের ব্লাড ক্যান্সার ধরা পড়লে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান।
পরে, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি ও বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করানোর পর মীমের ব্লাড ক্যান্সার হয় বলে নিশ্চিত করেন ডা: গোলাম রাব্বানী। আর ওই পর্যন্ত চিকিৎসা খরচ যোগান দিতেই সর্বস্বান্ত পিতা সেলিম উদ্দিন।

এখন অনেক কষ্টেও মীমের চিকিৎসা ব্যয় বহন করা তাদের দুঃসাধ্য হয়ে পড়েছে। বর্তমানে সে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু হিমোটলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. গোলাম রাব্বানীর তত্ত্বাবধানে ২য় তলার ১৪ নং বেডে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তাকে প্রায় ৩ বছরমেয়াদি চিকিৎসা নিতে হবে। এর মধ্যে রয়েছে কেমোথেরাপি, হিমোগ্লোবিন ও দামি ইনজেকশন।
এ খরচ বহন করা তার দরিদ্র পিতা-মাতার পক্ষে অসম্ভব হওয়ায় মীমকে বাঁচাতে সমাজের বিত্তবান ও সহৃদয়বান ব্যক্তিদের সহযোগিতা কামনা করেছেন তার বাবা।

সহযোগিতার জন্য যোগাযোগ করতে পারেন মীমের বাবা : ০১৮৬০৮৫২৫২২

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •