ফরিদুল আলম দেওয়ান, মহেশখালীঃ
মহেশখালীতে বেপরোয়া গতির সিএনজি চাপায় জুঁই মনি (৯) নামের এক ছাত্রী নিহত হয়েছে।
এ সময় মোনতাহা (৮) নামের আরো এক ছাত্রী আহত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (১১ মার্চ) সকাল দশটায় উপজেলার গোরকঘাটা জনতা বাজার সড়কের কালারমারছড়া ইউনিয়নের মাইজপাড়া দারুল কোরআন মাদ্রাসার সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
নিহত জুঁই মনি মাইজ পাড়া গ্রামের মহিবুল্লার মেয়ে।
হতাহত দুজনই মাইজপাড়া দারুল কুরআন মাদ্রাসা নার্সারি বিভাগের ছাত্রী।
নিহতের লাশ উদ্ধার করে করে মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। আহতকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
দুর্ঘটনা কবলিত সিএনজিটি ঘটনাস্থলে রয়েছে।
ঘটনার পর উত্তেজিত জনতা সড়ক অবরোধ করে প্রতিবাদ জানায়। এতে মহেশখালীতে অনুষ্ঠিতব্য শিব চতুর্দশী মেলায় পুলিশের গাড়িও আটকে পড়ে।
স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টার দিকে মহেশখালীর গোরকঘাটা-জনতা বাজার সড়কে দক্ষিণ দিক থেকে বদরখালীগামী একটি বেপরোয়া গতির সিএনজি মাইজপাড়া দারুল কোরআন মাদ্রাসার সামনে রাস্তা পারাপাররত দুই শিশুকে চাপা দেয়।
এতে মাইজপাড়ার জুঁইসহ দুইজন মারাত্মক আহত হয়। আহতদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে জুঁই মারা যায়। আহত ছাত্রী মোনতাহার অবস্থা আশংকাজনক বলে জানান প্রত্যক্ষদর্শীরা।
দুর্ঘটনার পরপর স্থানীয় এলাকাবাসী ও হতাহতদের আত্মীয় স্বজনরা এমন ন্যাক্কারজনক দুর্ঘটনার প্রতিবাদে রাস্তায় ব্যারিকেড দিয়ে যান চলাচল বন্ধ করে দেয়। এসময় বদরখালীর দিক থেকে মহেশখালীর আদিনাথ মেলায় দায়িত্ব পালনের উদ্দেশ্যে আসা কক্সবাজার জেলা পুলিশের টিম নিয়ে আসা একটি বাস গাড়িও আটকা পড়ে। খবর পেয়ে মহেশখালী থানা পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে উত্তেজনা প্রশমনের চেষ্টা করছে।
উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক সময়ে মহেশখালীর গোরকঘাটা জনতা বাজার সড়কটি নতুন ভাবে নির্মাণ করার সময় পুরো ২৭ কিলোমিটার সড়কের কোথাও স্পিড ব্রেকার না দেওয়ার কারণে চালকদের বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালানোর ফলে প্রতিদিনই ঘটছে দুর্ঘটনা। এলাকাবাসীরা সদ্য নির্মিত এই সড়কে দুর্ঘটনা রোধে জানা চলাচলের গুরুত্বপূর্ণ স্থান মসজিদ-মাদ্রাসায় স্কুল-কলেজ ও হাট-বাজারে স্পিড ব্রেকার স্থাপনের দাবি জানান।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •