এ.এম হোবাইব সজীব, মহেশখালীঃ
মহেশখালী উপজেলার কালারমারছড়া আঁধারঘোনা গ্রামের দরগাহঘোনায় পাহাড় কেটে ন্যাড়া করার দায়ে কামাল নাগু নামে এক ব্যক্তিকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৯ মার্চ ) দুপুরে মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মাহফুজুর রহমানের নির্দেশে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খোরশেদ আলম চৌধুরী এই দণ্ড দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত মোহাম্মদ নাগু (৪৫) উপজেলার কালারমারছড়া ইউনিয়নের পশ্চিম পাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

উপজেলার কালারমারছড়া আঁধারঘোনা গ্রামের দরগাহঘোনা পাহাড়স্থ সাবেক মেম্বার জাকের হোসাইনের বাড়ীর পূর্ব পাশে স্থানীয় দাপটু এক প্রভাবশালীর দখলে থাকা সরকারি পাহাড় দীর্ঘদিন ধরে সাবাড় করে লাখ লাখ টাকারর মাটি কাটে বিক্রি করে আসছিলেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলা এসিল্যান্ড ওই দিন দুপুর ১ টার সময় ঘটনাস্থলে পৌঁছে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। ভবিষ্যতে আর পাহাড় কাটবেন না-মর্মে তার কাছ থেকে মুচলেকা আদায় করেন। এসময় উপকূলীয় বনবিভাগের মহেশখালী রেঞ্জ কর্মকর্তা অভিজিত কুমার বড়ুয়াসহ বনবিভাগের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকারী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) খোরশেদ আলম চৌধুরী জানান, পাহাড় কাটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। ভবিষ্যতে পাহাড় কাটবেন না-এই মর্মে মুচলেকা দেওয়ার প্রেক্ষিতে নাগুকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। পাহাড় কাটা বন্ধের ব্যাপারে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

মহেশখালী রেঞ্জ কর্মকর্তা অভিজিত কুমার বড়ুয়া বলেন, পাহাড় কর্তনে যারা জড়িত তারা যতই প্রভাবশালী হোক না কেন তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •