ওমর ফারুক সোহাগ:

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার ৫ ইউনিয়নের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কে হচ্ছেন তৃণমুল থেকে উঠে আসা আওয়ামীলীগ প্রার্থী৷

শনিবার (৬ মার্চ) কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে টেকনাফ উপজেলার ৫ ইউনিয়নের প্রার্থী বাঁচাই ও সাক্ষাত কার পর্যালোচনা সভা অনুষ্টিত হয়৷

জানাগেছে, টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচনে আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয় পাওয়ার জন্য ৬ জনের দৌড় ঝাপ৷

১. ফরিদুল আলম জুয়েল ২. হারুনুর রশিদ সিকদার ৩.মঈনুল হোসেন ৪. আলমগীর চৌধুরী ৫. আজিজুল হক ৬ শেখ শাহ্ আলম৷

তন্মধ্যে, ফরিদুল আলম জুয়েল এর রাজনীতির সময় তুলে ধরা হল৷

১৯৯৭ সালে নয়াবাজার উচ্চ বিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি, ২০০০ সালে হোয়াইক্যং ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, ২০০১ সালে টেকনাফ ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ন সম্পাদক, ২০১০ সালে টেকনাফ উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, ২০১২ সালে টেকনাফ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি৷

তৃণমূল থেকে উঠে আসা এই সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও ফরিদুল আলম জুয়েল আওয়ামীলীগ থেকে গত ২০১৬ সালে মনোনয়ন পেয়ে নির্বাচন করে৷ নির্বাচনে অল্প ভোটে হেরে গেলেও কিন্তু জনগনের পাশ থেকে দুরে সরে জাননি৷

ফরিদুল আলম জুয়েল, ২০১৮ সালে হোয়াইক্যং ইউনিয় যুবলীগের আহবায়ক, ২০১৯ সালে হোয়াইক্যং ইউনিয় যুবলীগের সভাপতি ছিলেন৷

আরো জানো যায়, হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন পাওয়ার জন্য আওয়ামী পরিবারের ৩ জনের দৌড়ঝাপ৷

১. মিজানুর রহমান মিজান ২. রাশেদ মোহাম্মদ আলী ৩. আবুল হোসেন মেম্বার

তন্মধ্যে, মিজানুর রহমান মিজানের পরিবার আওয়ামীলীগের এক অন্যতম পরিবার৷ এবং তিনি কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের প্রভাবশালী সদস্য৷

অপরদিকে সাবেক সংসদ সদস্য মোহাম্মদ আলীর ছেলে রাশেদ মোহাম্মদ আলী আওয়ামীলীগ থেকে গত উপ নির্বাচনে নির্বাচিত হয়ে চেয়ারম্যান হিসেবে আছেন৷

উল্লেখ্য যে, ইউপি নির্বাচনে মনোনয়পত্র দাখিলের শেষ তারিখ আগামী ১৮ মার্চ । ১৯ মার্চ প্রার্থীতা বাছাই ও ২৪ মার্চ মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন। ভোট গ্রহন ১১ এপ্রিল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •