ছোটন কান্তি নাথ :
ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান এমপি বলেছেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষে সংসদ সদস্য জাফর আলম কর্তৃক চকরিয়ায় স্থাপিত ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ কর্ণার’ এক অনবদ্য সৃষ্টি। এর মাধ্যমে বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্রটি সৃষ্টির পেছনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ধারাবাহিক সংগ্রামের বিষয়টি তথ্যচিত্রের মাধ্যমে অনিন্দ্য সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। একইসাথে বর্তমান সরকারের সাফল্যগুলো তুলে ধরা হয়েছে। এটি আগামী দিনের প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গঠনে উৎসাহিত করবে এবং দেশও ক্রমান্বয়ে উন্নত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশে পরিণত হবে।
মন্ত্রী বলেন, আমি এর উদ্যোক্তা কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য জাফর আলমকে ব্যক্তিগতভাবে অন্তরস্থল এবং দলের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।
ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান ৫ মার্চ শুক্রবার সকাল এগারটার দিকে পরিদর্শন করেন চকরিয়া পৌরশহরের সিস্টেম চকরিয়া কমপ্লেক্সের চতুর্থ তলায় স্থাপিত ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ কর্ণার’। এ সময় পরিদর্শন বহিতে প্রতিমন্ত্রী ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ কর্ণার’ নিয়ে উপরোক্ত মন্তব্য করেন।
ধর্ম প্রতিমন্ত্রীকে ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ কর্ণার’-এ স্বাগত জানান কক্সবাজার-১ আসনের এমপি ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম। এ সময় এমপির সহধর্মীনি শাহেদা জাফর ফুল দিয়ে বরণ করেন মন্ত্রীকে। দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরাও মন্ত্রীকে ফুল দিয়ে বরণ করেন ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ কর্ণার’ পরিদর্শনে আসলে।
পরিদর্শনের সময় মন্ত্রীর সাথে আরো ছিলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ধর্মবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য দিনাজপুরের এমপি মনোরঞ্জন শীল গোপাল, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) মু. আবদুল আউয়াল হালদার, বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাষ্ট্রের ভাইস চেয়ারম্যান সুপ্ত ভূষণ বড়ুয়া, বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাষ্ট্রের ট্রাষ্টি ও কক্সবাজার জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ সভাপতি অ্যাডভোকেট দীপঙ্কর বড়ুয়া পিন্টু, চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, চকরিয়া পৌরমেয়র আলমগীর চৌধুরী, চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম লিটু, আওয়ামী লীগ নেতা আবু হেনা মোস্তফা কামাল, পেকুয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম, পেকুয়ার সহ-সভাপতি ও সাংবাদিক জহিরুল ইসলাম, চকরিয়া উপজেলা নারী ভাইস চেয়ারম্যান জেসমিন হক জেসি চৌধুরী, আওয়ামী লীগ নেতা আবু মুছা, টৈটংয়ের জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী, চিরিঙ্গার জামাল হোছাইন, বদরখালীর একে ভুট্টু সিকদার, আহমদ রেজা, এপিএস আমিন চৌধুরী হাসানুল ইসলাম আদর, নজরুল ইসলাম, খুটাখালী জয়নাল আবেদীন ও বাহাদুর হক, হেলাল উদ্দিন হেলালী, জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক এইচ এম শওকত, সালেহ আহমদ সুজন প্রমূখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •