বলরাম দাশ অনুপম :
ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মোঃ ফরিদুল হক খান এমপি বলেছেন, বর্তমান সরকার সংবিধানের “ধর্ম নিরপেক্ষতা”র মূলনীতি অনুসরণ করে সকল ধর্মের অনুসারীদের কল্যাণে সমান সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করতে অঙ্গীকারাবদ্ধ। এ লক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী  শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার সকল ধর্মীয় সম্প্রদায়ের উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তাঁর  নির্দেশে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সকল ধর্মীয় সম্প্রদায়ের উন্নয়ন এবং সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বৃদ্ধির লক্ষ্যে নানামুখী কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। ধর্মীয় সম্প্রীতি ও সচেতনতা বৃদ্ধিকরণ শীর্ষক প্রকল্প সরকারের একটি অন্যতম উদ্যোগ।

প্রতিমন্ত্রী বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) বিকেলে কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে জেলা প্রশাসন আয়োজিত ধর্মীয় সম্প্রীতি ও সচেতনতামূলক আন্ত:ধর্মীয় মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন।

উক্ত অনুষ্ঠানে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন-সকল ধর্ম মানুষের কল্যাণের কথা বলে, শান্তির বার্তা শোনায়।সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের বিষয়টি কোন ধর্মই সমর্থন করেনা। এটি মানবতা বিরোধী অপরাধ। সব কিছুর উর্দ্ধে মানব ধর্ম যা প্রতিটি ধর্মের ক্ষেত্রে সত্য। প্রতিটি ধর্মের মূল বিষয়গুলোতে অনেক সাদৃশ্য রয়েছে। সে সাদৃশ্যসমূহকে অবলম্বন করে সম্প্রীতি বৃদ্ধি করতে হবে। ধর্মের নামে উগ্রবাদ, সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ একটি ঘৃন্য বিষয়। বাংলাদেশের মাটিতে সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদের কোন স্থান নেই। সকলের সহযোগিতায় ধর্মীয় উগ্রবাদ, সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদকে
প্রতিহত করা হবে।

জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশীদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত মতবিনিময় সভায় মূখ্য আলোচক ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সর্ম্পকিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি, মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনের সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক, চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সংসদ সদস্য জাফর আলম, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) মু: আ: আউয়াল হাওলাদার, অতিরিক্ত
পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) পংকজ বড়ুয়া, বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ভাইস চেয়ারম্যান সুপ্ত ভূষণ বড়ুয়া।

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাং শাহাজান আলীর সঞ্চালনায় ও ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক ফাহমিদা বেগমের স্বাগত বক্তব্যের মধ্যে দিয়ে শুরু হওয়া উক্ত মতবিনিময় সভায় আরো বক্তব্যে রাখেন-জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি এডভোকেট রনজিত দাশ, কক্সবাজার প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুল ইসলাম, হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি বাবুল শর্মা, বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি এডভোকেট দীপংকর বড়ুয়া পিন্টু, জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক প্রিয়তোষ শর্মা চন্দন, বৌদ্ধ সমিতির সভাপতি রবীন্দ্র বিজয় বড়ুয়া, কক্সবাজার সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ নাসির উদ্দিন, সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রাম মোহন সেন, ইমাম সমিতির সভাপতি মাওলানা সিরাজুল ইসলাম সিদ্দিকী, মাওলানা সালাউদ্দিন মোঃ তারেক, জেলা সৎসঙ্গ আশ্রমের প্রধান পুরোহিত বিশ্বনাথ বন্দোপ্যাথায়, বাংলাদেশ বুড্ডিস্ট ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ভিক্ষু সুনন্দপ্রিয় প্রমুখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •