সিবিএন ডেস্ক:
৩৬দিন পর আবারও দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) বিকালের দিকে ভারত থেকে একটি ট্রাকে ৩০ মেট্রিকটন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়। ইন্দোর জাতের এই পেঁয়াজ স্থলবন্দরে পাইকারিতে ৩০-৩১ টাকা দরে বিক্রি হয়েছে। হিলি স্থলবন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

গত ২৭ জানুয়ারি থেকে বন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ ছিল।

হিলি স্থলবন্দরের পেঁয়াজ আমদানিকারক সোহেল রানা ও পেঁয়াজ ব্যবসায়ী রবিউল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধের কারণে পাবনা, মেহেরপুরসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে পেঁয়াজের পর্যাপ্ত আবাদ করেছেন কৃষকরা। এ কারণে পেঁয়াজের উৎপাদন আগের তুলনায় বাড়ায় বাজারে দেশি পেঁয়াজের সরবরাহ যেমন বেড়েছে তেমনি দামও ভারতীয় পেঁয়াজের চেয়ে কম ছিল। এরপর ভারত সরকার পেঁয়াজ রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নিলে সাড়ে তিন মাস বন্ধের পর ২ জানুয়ারি থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়। তবে দেশীয় পেঁয়াজের চেয়ে আমদানি করা পেঁয়াজের দাম বেশি হওয়ায় ভারতীয় পেঁয়াজের চাহিদা কমে যায়। এছাড়া পেঁয়াজ আমদানিতে শুল্ক আরোপের কারণে লোকশান হওয়ায় পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ করে দেন আমদানিকারকরা। কিন্তু সম্প্রতি দেশীয় পেঁয়াজের সরবরাহ আগের তুলনায় কমতে শুরু করেছে, এ কারণে পেঁয়াজের দাম আগের তুলনায় কিছুটা বাড়ছে। এজন্য আবারও পেঁয়াজ আমদানি শুরু করেছেন আমদানিকারকরা। আগামী সপ্তাহ থেকে নিয়মিত পেঁয়াজ আমদানি হবে। এছাড়া আগামী রমজানে পেঁয়াজের বাড়তি চাহিদা থাকবে, তাই পেঁয়াজের আমদানিও বাড়বে।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •