চকরিয়া সংবাদদাতাঃ
চকরিয়ায় পৃথক অভিযান চালিয়ে পাটের বস্তা ব্যবহার না করে প্লাস্টিকের বস্তা ব্যবহার করার অপরাধের দায়ে ৪ অটো রাইচমিল মালিককে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। এছাড়াও অভিযানে ভ্রাম্যমান আদালত অবৈধ ভাবে বালু মহল থেকে বালি উত্তোলন কাজে ব্যবহৃত বালিভর্তি তিনটি ডাম্পার গাড়ি জব্দ করেছে।

বৃহস্পতিবার (৪ফেব্রুয়ারী) দুপুর ১টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত চকরিয়া পৌরসভাস্থ মগবাজার ও সাহারবিল ইউনিয়নস্থ রামপুর স্টেশনের দক্ষিণে উমখালী সড়কে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো.তানভীর হোসেন নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করেন।

ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান সূত্রে জানাগেছে, চকরিয়া পৌরসভার মগবাজারস্থ স্থাপিত কয়েকটি অটো রাইচমিলে ২০১০ সালের পণ্য মোড়কে পাটজাত দ্রব্যের ব্যবহার আইন অমান্য করে চাউল বিক্রি ও রাইচমিল চালিয়ে আসছিল। বিষয়টি প্রশাসনের নজরে আসলে বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালত ওইসব রাইচ মিলে অভিযানে গেলে আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট স্বচোক্ষে দেখতে পান
রাইচমিলে পাটের বস্তা ব্যবহার না করে প্লাস্টিকের বস্তা ব্যবহার করার অপরাধের দায়ে ৪ অটো রাইচমিল মালিককে ২০১০ সালের পণ্য মোড়কে পাটজাত দ্রব্যের ব্যবহার আইনে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন। জরিমানাকৃত রাইচমিল গুলো হচ্ছে চকরিয়া পৌরসভার মগবাজারস্থ হাজী অটো রাইচ মিলকে ৫ হাজার, জাকের অটো রাইচমিলকে ১০ হাজার, সোনালী অটো রাইচমিলকে ৫ হাজার ও বেলাল অটো রাইচমিলকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।
অপরদিকে, এইদিন বিকালে উপজেলার সাহারবিল ইউনিয়নস্থ রামপুর স্টেশনের উমখালী সড়ক দিয়ে প্রতিদিন অবৈধ বালু মহল থেকে বালিভর্তি গাড়ি যোগের কারণে এলাকার পরিবেশ ধুলো বালিতে চরম বিঘ্ন ঘটে। বিষয়টি প্রশাসনের নজরে আসলে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালায়। এসময় ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বালু মহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ ও পরিবেশ আইন লঙ্ঘন করার অপরাধে বালু মহল থেকে বালি উত্তোলন কাজে ব্যবহৃত তিনটি বালিভর্তি ডাম্পার গাড়ি জব্দ করা হয়।
অভিযানের সময় উপস্থিত ছিলেন, পাট অধিদপ্তরের মুখ্য পরিচালক শীতাকুন্ড জোনের পার্থ সারথী মুর্শুদী, পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়ন (ভুমি) সহকারী কর্মকর্তা মো: আবুল মনছুর, উপজেলা ভুমি অফিসের অফিস সহাকারী ও ভ্রাম্যমান আদালতের পেশকার দীপক বডুয়া, অফিস সহায়ক ফয়সাল, থানা পুলিশসহ বিভিন্ন সরকারী কর্মচারীবৃন্দ।

চকরিয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো.তানভীর হোসেন বলেন, সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী পণ্য মোড়কজাতকরণে শুধুমাত্র পাটের বস্তা ব্যবহার করা যাবে। কিন্তু জরিমানাকৃত রাইচ মিলে পাটের বস্তার পরিবর্তে প্লাস্টিকের বস্তা ব্যবহার করে আসছিল। ২০১০ সালের পণ্য মোড়কে পাটজাত দ্রব্যের ব্যবহার সংশ্লিষ্ট আইন অনুযায়ী চার রাইসমিলকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
তিনি আরও বলেন, অপর একটি অভিযানে
বালিভর্তি গাড়িযোগের কারণে এলাকার পরিবেশ বিঘ্ন সৃষ্টি হওয়ার দায়ে মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ ও পরিবেশ আইন লঙ্ঘন করার অপরাধে বালিভর্তি তিনটি ডাম্পার গাড়ি জব্দ করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •