শাহেদ মিজান:
কক্সবাজারে জমি অধিগ্রহণ মামলায় দুদকের হাতে গ্রেফতার এড. নূরুল হককে জামিন দিয়েছেন আদালত। বুধবার বেলা ২টার দিকে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক ইসমাঈল হোসেন তার জামিন মঞ্জুর করেন। জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের জিম্মায় তাকে জামিন দেন আদালত।

তবে তার সহযোগী ইদ্রিস সিআইপির জামিন নামঞ্জুর করেছেন। দুদকের আইনজীবী আবদুর রহিম এই তথ্য জানান।

দুদকের পিপি’র আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আসামী এড. নুরুল হক ও ইদ্রিস এর ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। তবে এড. নুরুল হক এর রিমান্ড কার্যকর করতে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সম্পাদকের কক্ষে। কারণ একই সাথে আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সম্পাদক এর জিম্মায় এড. নুরুল হক এর জামিন মঞ্জুর করা হয়েছে। আদালতের পরবর্তী কোন আদেশ না হওয়া পর্যন্ত এড. নুরুল হক সবসময় আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সম্পাদক এর জিম্মায় থাকবেন।

জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি আবুল কালাম ছিদ্দিকী জানান, জমি অধিগ্রহণের টাকা আত্মসাতের মামলায় নূরুল হককে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের একদিন পর আদালতে তোলা হলে তার আইনজীবীরা জামিন আবেদন করেন। আবেদন আমলে নিয়ে জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের জিম্মায় ২০ হাজার টাকা বন্ডে তাকে জামিন দেন আদালত।

দুদক কর্মকর্তারা জানান, ২মার্চ সন্ধ্যা ৬টার কক্সবাজার শহরের বাহারছড়া ছড়া এলাকা থেকে এড. নূরুল হক ও ইদ্রিস সিআইপিকে গ্রেফতার করা হয়। জমি অধিগ্রহণে জালিয়াতির মাধ্যমে টাকা আত্মসাৎ, মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগে ইদ্রিস সিআইপি ও এড. নূরুল হককে গ্রেফতার করে দুদক।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •