তাজুল ইসলাম পলাশ, চট্টগ্রাম:
চট্টগ্রাম নগরীর কোতোয়ালী থানায় দায়ের করা মাদক মামলায় শ্যামলী বাসচালক ও সুপারভাইজারকে ১০ বছর এবং বাসের হেলপারকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (১ মার্চ) অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ শরীফুল আলম ভূঁঞার আদালত এ দন্ডাদেশ দেন।

দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন- চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ থানার নিশ্চিতপুর গ্রামের মো. আবুদল হাসেমের ছেলে ও বাস চালক মো. সবুজ (৩২), বরিশাল জেলার গৌরনদী থানার গিয়াঘাট এলাকার সুকুমার মন্ডলের ছেলে ও বাসের সুপারভাইজার পলাশ মন্ডল (২৮) এবং বরিশাল জেলার উজিরপুর থানার ভরসাকাঠি এলাকার আব্দুর রব হাওলাদার ছেলে ও বাসের হেলপার মো. নাসির হাওলাদার (৩০)।

দন্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে বাসচালক মো. সবুজ ও হেলপার মো. নাসির হাওলাদার রায় ঘোষণার সময় আদালতে উপস্থিত থাকলেও বাসের সুপারভাইজার পলাশ মন্ডল (২৮) হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়ে বর্তমানে পলাতক রয়েছেন।

আদালত সূত্র জানায়- ২০১৮ সালের ২৯ জুন কক্সবাজার থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়া শ্যামলী বিজনেস ক্লাস যাত্রীবাহী বাসকে (ঢাকা মেট্টো-ব ১৪-৯৮৬৪) রাত ৩টার দিকে নগরের কোতোয়ালী থানার সৈকত হোটেলের সামনে থামানোর সংকেত দেয় র‌্যাব।

নির্দেশনা উপেক্ষা করে বাসটি রেখে চালক, সুপারভাইজার ও হেলপার পালানোর চেষ্টাকালে ধাওয়া করে তিনজনকেই আটক করে র‌্যাব। পরে চালক, সুপারভাইজার ও হেলপারের দেহ ও বাস তল্লশি করে ১৯ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। কোতয়ালী থানায় এ ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য আইনে মামলা দায়ের করা হয়।

মহানগর দায়রা জজ আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর অনুপম চক্রবর্তী গণমাধ্যমকে বলেন, মাদক মামলায় দোষী প্রমাণিত হওয়ায় শ্যামলী বাসের চালক ও সুপারভাইজারকে ১০ বছর করে এবং হেলপারকে ৫ বছরের কারাদন্ড এবং প্রত্যেককে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন আদালত। অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদন্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •