ইমরান আল মাহমুদ,উখিয়া:
কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কে দূর্ঘটনা রোধে রোড ডিভাইডারের প্রয়োজনীয়তা দেখা দিয়েছে। প্রতিনিয়ত সড়ক দূর্ঘটনার কবলে অকালে ঝরে যাচ্ছে তাজা প্রাণ। পিতার কাঁধে উঠছে পুত্রের লাশ।

জানা যায়, কোটি কোটি টাকা ব্যয়ে প্রশস্ত ও সংস্কার করার পর সড়কটিতে বৃদ্ধি পেয়েছে দূর্ঘটনা। বেপরোয়া গতিতে ড্রাইভিং,অদক্ষ চালক,ট্রাফিক আইন অমান্য করে দূর্ঘটনার ঝুঁকি নিয়ে প্রতিনিয়ত চলাচল করছে হাজারো যানবাহন।

সচেতন মহলের দাবি, প্রতিনিয়ত সড়ক দূর্ঘটনা রোধে সড়কে রোড ডিভাইডার স্থাপন জরুরী হয়ে পড়েছে। দীর্ঘ ৭৯ কিলোমিটার শহীদ এটিএম জাফর আলম আরাকান সড়কে রোড ডিভাইডার স্থাপনের উদ্যোগ নিলে সড়ক দূর্ঘটনা হ্রাস পাবে বলে মনে করছে তারা।

সম্প্রতি কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের উদ্যোগে উখিয়া উপজেলায় অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় কউক চেয়ারম্যান বরাবর মৌখিকভাবে রোড ডিভাইডার স্থাপন করার দাবি জানানো হয়।

উখিয়া-টেকনাফের শিক্ষার্থীসহ জনসাধারণের দাবি,যানজট নিরসন ও নির্বিঘ্নে যাতায়াতে সড়ক সংস্কার করা হলেও প্রকৃত অর্থে সুফল মিলছেনা। বরং সমস্যা আরও বৃদ্ধি পেয়েছে। যার তথ্য অনুযায়ী সরেজমিনে দেখা যায়, সড়কের উপর যত্রতত্র গাড়ি পার্কিংয়ে যানজট ভোগান্তি বেড়েই চলেছে। বিভিন্ন সময় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অবৈধ গাড়ি পার্কিং ও ফুটপাত দখলের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করা হলেও পুনরায় ফুটপাত দখল করে যত্রতত্র পার্কিং স্থাপন করে যানজট সৃষ্টি করে চালকরা।

যাত্রীবাহী বাস,মাইক্রোবাস,সিএনজি, টমটম ছাড়াও মোটরসাইকেল দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছে চালক ও আরোহীরা। মালবাহী ট্রাক পিক-আপ সহ সব যানবাহনের বেপরোয়া গতিতে প্রতিনিয়ত দূর্ঘটনার শিকার হয়ে তাজা প্রাণ চলে যাচ্ছে অনেকের। স্বপ্ন বিলীন হচ্ছে সড়কে।

গত ১০ ফেব্রুয়ারি হোয়াইক্যং উনচিপ্রাংয়ে বাস-সিএনজি সংঘর্ষে মরিচ্যাঘোনা এলাকার সালামত উল্লাহ(৬০) সহ চারজন নিহত হয়। একইদিন সন্ধ্যায় উখিয়া উপজেলার পালং গার্ডেন এলাকায় মোটরসাইকেল দূর্ঘটনায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অফিসের কম্পিউটার সহকারী শাহ রেজা নিহত হন।

কক্সবাজার সিটি কলেজের শিক্ষার্থী মাহবুব নেওয়াজ মুন্না জানান, কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কের যানজট ও দূর্ঘটনাজনিত প্রাণহানি রোধে সড়কটি সংলগ্ন স্টেশন ও বাজারগুলোতে ডিভাইডার বসানো অতি-আবশ্যক। জরুরী ভিত্তিতে রোড ডিভাইডার বসানোর জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য কর্তৃপক্ষের প্রতি বিনীত অনুরোধ জানান তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •