cbn  

লাইফস্টাইল ডেস্ক:
একটি সম্পর্ক সব সময় হানিমুন মুডে থাকবে, আর একটু পরপর সঙ্গী আপনার খোঁজ নেবে ‘বাবু খাইছো?’, ‘বাবু ঘুমাইছো?’ এটা ভাবার কারণ নাই।

সম্পর্কে মান-অভিমান থাকবে।

থাকবে কিছু মতপার্থক্যও। এসবও সম্পর্ক আরও গভীর করে। সঙ্গীর প্রতি ভালোবাসাও বাড়িয়ে দেয় অনেক সময়। আবার এই মান-অভিমানের বাড়াবাড়ি সম্পর্ক নষ্ট করতে যথেষ্ট।
অনেকেই মনোমালিন্য হলে সঙ্গীকে সরাসরি সরি বলতে অস্বস্তিতে থাকেন, তারা জেনে নিন, কীভাবে মান-ভাঙাবেন প্রিয় মানুষটির:

সরি বলতে হবে না। সঙ্গীকে বলুন এই যে তোমার মন খারাপ হলো, আসলে এটা না বললেই পারতাম। আজকের ঝগড়ার পুরো দায়িত্বটাও নিন। এরপর এমন হবে না, এটাও বলে দিন। এতেই কাজ হবে, সঙ্গী তো অপেক্ষাতেই ছিলেন, আপনার সঙ্গে মিলে যাওয়ার জন্য।

কিছু হলেই কথা বন্ধ! এটা কোনো সমস্যার সমাধান হতে পারে না। বরং পরিস্থিতি জটিল করে। যাই হোক কথা বলুন, দেখবেন একটা সময় রাগ কমে মন নরম হয়ে যাবে।

প্রিয় মানুষটি কষ্ট পাচ্ছে, আবার কথা বলতেও অস্বস্তি লাগছে? বেশতো, প্রশ্ন করুন। এটা কোথায়, ওটা কোথায়, বাইরে থেকে কিছু আনতে হবে কিনা, প্রয়োজন না হলেও প্রশ্ন করুন। উত্তর পাওয়ার আশা করবেন না। তবে কিছুক্ষণের মধ্যেই স্বাভাবিক কথায় ফিরে আসতে এটা দারুণ টনিকের কাজ করবে।

আগে বোঝার চেষ্টা করুন সঙ্গীর মন কেমন খারাপ, সেই অনুযায়ী এটা ছোট উপহার নিয়ে আসুন। যেমন যদি খুব ছোট কারণে মন খারাপ হয়, তবে তার পছন্দের চকলেট-আইসক্রিম বা ফুল, অপরাধ যদি আরেকটু বড় করে থাকেন, তাহলে সুন্দর একটা পোশাক বা সুগন্ধি।

যদি তাকে আঘাত করে থাকেন তাহলে অনেক সময় হতে পারে আপনি ক্ষমা চাইলেও অপরজন সেই আঘাত ভুলতে পারছেন না। তাহলেও ভেঙে পড়বেন না। সময় দিন তাকে। যত্ন নিন নিজের সম্পর্ক আরও সুন্দর করে তুলতে।

প্রিয় মানুষটিকে খুশি করতে মাঝে মাঝে সরি বলতে শিখুন। অভিমান ভুলে, থাকুন ভালোবাসার উষ্ণতায়। তখন সঙ্গী ঠিকই আপনার খোঁজ নেবে ‘বাবু খাইছো?’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •