এম.মনছুর আলম, চকরিয়া :
চকরিয়ায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ৮ দোকান পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে এক ব্যক্তি আহত হন। অগ্নিকান্ডের আগুনে দোকান ব্যবসায়ীদের অন্তত ২০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীরা দাবী করেন। তবে কি কারণে আগুনের সূত্রপাত ঘটেছে তা কেউ এখনো বলতে পারেনি।
সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার হারবাং ইউনিয়নস্থ হারবাং বাস স্টেশন এলাকায় এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার হারবাং ইউনিয়নস্থ বাস স্টেশন এলাকায় সাড়ে নয়টার দিকে আকস্মিক ভাবে ভয়াবহ
অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত ঘটে মুহুর্তের মধ্যে আগুনের লেলিহান শিখা ছড়িয়ে পড়ে ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের ৮ দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এমময় আগুন নেভানোর চেষ্টা করতে গিয়ে এক ব্যক্তি আহত হন। খবর পেয়ে চকরিয়া ফায়ার সার্ভিসের দমকল বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। আগুনে পুড়ে যাওয়া দোকান গুলো হচ্ছে দুইটি গ্রীল ওয়ার্কসপ, ইলেকট্রিক দোকান,লেপ-তোষকের দোকান, কামারের দোকান ও দুইটি রিক্সার গ্যারেজ দোকান।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মূলত জসিম উদ্দিনের লেপ তোষকের দোকানের মালিকের ভাগিনা দিদার ও তার বন্ধু মিলে দিয়াশলই নিয়ে তুলায় আগুন লাগিয়ে দেয়। ওই তুলার আগুন থেকে অগ্নিকান্ডে সূত্রপাত ঘটেছে বলে অভিযোগ করেছে স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী।
অগ্নিকান্ডের বিষয়ে হারবাং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মিরানুল ইসলাম বলেন, অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল যাওয়া হয়। তাৎক্ষনিক ভাবে চকরিয়া ফায়ার সার্ভিসকে জানানো হয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের কর্মী বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হন। মুহুর্তের মধ্যে আটটি দোকান পুড়ে ব্যবসায়ী ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি সাধন হয়েছে।তিনি ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীকে উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে সহযোগতিার দেয়ার আশ্বাস দেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •