cbn  

সিবিএন:
কক্সবাজার শহরের সমিতি পাড়ায় তছলিমা আকতার (১৬) নামের পিতৃ-মাতৃহীন এক কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে অপহরণ করে একমাস ধরে ধর্ষণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই এলাকার ওমর আলী মাঝির পুত্র মোজাহিদ নামের এক যুবক এই ঘটনা ঘটিয়েছেন। এক মাস পর ওই কিশোরীকে তাড়িয়ে দেয়া হয়েছে। ধর্ষণে গর্ভবতী হয়ে পড়েছেন ওই কিশোরী। এতে নিরুপায় হয়ে চরম অসহায় হয়ে পড়েছেন ওই কিশোরী।

ওই কিশোরীর পালক মা জানান, ওই কিশোরীকে প্রেমের ফাঁদের ফেলে মোজাহিদ। কিন্তু তাতে বাধ সাধতেন কিশোরীর পালক মা। মোজাহিদের কারণে অতিষ্ঠ হয়ে ওই কিশোরীকে উখিয়ার নিজের বাপের বাড়িতে (পালক মায়ের) পাঠিয়ে দেন পালক মা। তবে সেখানে গিয়েও রক্ষা করা যায়নি।

গত ৭ জানুয়ারি বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ওই কিশোরীকে অপহরণ করে নিয়ে মোজাহিদ। এক মাস তাদের কোনো খোঁজ ছিলো না। এক পর্যায়ে গত ১০ ফেব্রæয়ারি ওই কিশোরীকে মারধর করে পালক মায়ের বাড়িতে তাড়িয়ে দেয় মোজাহিদ। তাকে হাসপাতালে নিয়ে পরীক্ষার করা হলে গর্ভবতী বলে জানান চিকিৎসকরা।

কিশোরীর পালক মা বলেন, ছোট বেলায় মা-বাবার মধ্যে তালাক হওয়ায় এতিম হয়ে পড়ে কিশোরী তছলিমা আকতার। অভাবের সংসারে অনেক কষ্টে লালন করে তাকে বড় করি আমি। কিন্তু মোজাহিদ নামের লম্পট যুবক আমার মেয়ের সর্বনাশ করেছে। বিয়ের করবে বলে নিয়ে গেলেও এখন বিয়ে করছে না। উল্টো তাকে হুমকি দিচ্ছে। এতে আমার মেয়ের জীবনটা ধ্বংস হওয়ার পথে। আমি প্রশাসনের কাছে এর উচিত বিচার চাই।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •