cbn  

অনলাইন ডেস্ক : নোয়াখালী বসুরহাট পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা অপপ্রচারের মাধ্যমে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মওদুদ আহমদের অনুপস্থিতিতে বিএনপি থেকে এমপি নির্বাচিত হওয়ার সমঝোতা করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন ফেনীর সোনাগাজী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জহির উদ্দিন মাহমুদ লিপটন।

মঙ্গলবার দুপুরে ফেনী শহরের ফুডল্যান্ড রেস্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি দাবি করেন, লন্ডনে পালিয়ে থাকা বিএনপি নেতা তারেক রহমানের সাথে গোপন সমঝোতার কারণে বসুর হাট পৌর মেয়র আবদুল কাদের মীর্জা আ.লীগ নেতাদের বিরুদ্ধে আবোল তাবোল বকছে। আবদুল কাদের মীর্জা বসুর হাট পৌরসভা নির্বাচনের পূর্বে আমেরিকায় গিয়ে বিএনপি নেতাদের মধ্যস্থতায় লন্ডনে পালিয়ে থাকা বিএনপি নেতা তারেক রহমানের সাথে ভার্চুয়াল মাধ্যমে গোপন সমঝোতায় মিলিত হন। তিনি বিএনপি জামায়াতের ভোট নিয়ে মেয়র নির্বাচিত হতে নানা নীতি কথা শুনিয়েছেন।

ফেনীর আওয়ামী লীগ নেতারা দাবি করে বলেন, কাদের মির্জা আমেরিকার জেকসনের একটি হোটেলে বিএনপি-জামায়াতের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। তিনি বিএনপি-জামায়াতের সোল এজেন্ট হিসেবে কাজ করছেন। যে কথাগুলো বিএনপির মির্জা ফখরুল ইসলাম বলছেন, সে কথাগুলো কাদের মির্জাও বকছেন। তিনি একে একে ফেনী, নোয়াখালী জেলা ও কেন্দ্রীয় আ’লীগের নেতাদের বিরুদ্ধে বিষোদগার করে মিথ্যাচার করে যাচ্ছেন।

তিনি বিএনপি-জামায়াতের পেইড এজেন্ট, টেন্ডারবাজ, চাঁদাবাজ, মাদকাসক্ত, দুঃশ্চরিত্র, বেসামাল ও একজন খুনী। তাকে দ্রুত পাবনা মানসিক হাসপাতাল অথবা কারাগারে প্রেরণের দাবি জানান তারা।

এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন ফেনী পৌরসভার মেয়র, ফেনী পৌর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী এবং জেলা যুবলীগের সভাপতি, দাগনভূঞা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দিদারুল কবির রতন।

আরও উপস্থিত ছিলেন ছাগলনাইয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মেজবাউল হায়দার চৌধুরী সোহেল, ফুলগাজী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল আলিম মজুমদার, সোনাগাজী পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম খোকন প্রমুখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •