সংবাদদাতাঃ
সদর উপজেলার পিএমখালীতে পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে দেনাদারের হুমকি ও অনৈতিক প্রস্তাবের স্বীকার হয়েছে পাওনাদার। এ ঘটনায় প্রতিকার চেয়ে ১৪ ফেব্রুয়ারি কক্সবাজার সদর মডেল থানায় লেখিত অভিযোগ করেছেন সাইফুন আক্তার সানি নামক এক নারী।
তিনি ইউনিয়নের তোতুকখালী গ্রামের রমজান আলী সিকদারের কন্যা ও বাংলাবাজার এলাকার আশরাফ আলীর স্ত্রী।
সানির অভিযোগে প্রকাশ, তোতকখালী গ্রামের মৃত কলিম উল্লাহ সিকদারের পুত্র নুরু উদ্দিন জাসেদ পৃথক ৮ কিস্তিতে ৬ লক্ষ ৮৬ হাজার টাকা গ্রহন করে। নুরউদ্দিন জাসেদ গ্রহনকৃত উক্ত টাকা সৌদি আরবে সাইফুন আক্তার সানির স্বামির হোটেলে চাকুরি করে পরিশোধ করার বারবার প্রতিশ্রুতি দিলেও অদ্যবধি সে সৌদি আরবে যায়নি এবং পাওনা টাকাও পরিশোধ করছেনা।
থানায় দায়ের করা অভিযোগে সাইফুন আক্তার সানি আরও উল্লেখ করেন, গত ২৩ জানুয়ারি বিকালে টাকা দেয়ার কথা বলে নুরুদ্দিন তার বাড়িতে সাইফুন আক্তার সানিকে ডেকে নিয়ে যায়। এ সময় পাওনা টাকা পরিশোধের পরিবর্তে উল্টো থাকে অবৈধ ও অনৈতিক কাজের প্রস্তাব দেয়া হয়। এ ঘটনায় সানি তার স্বামিকে জানালে সে উক্ত খারাপ প্রস্তাবের প্রতিবাদ করলে নুরুদ্দিন স্বামী আশরাফ আলীকে জানে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। বর্তমানে নুরুদ্দিন জাসেদের হুমকিতে চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে সাইফুন আক্তার সানি ও তার স্বামীসহ পুরো পরিবার।
এ ব্যপারে আইন প্রয়োগকারি সংস্থাসহ সকলের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন সাইফুন আক্তার সানি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •