মোঃ কাউছার ঊদ্দীন শরীফ, ঈদগাঁও :

কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁওতে যৌতুকের দাবি মেটাতে না পারায় পাষন্ড স্বামীর ধারালো অস্ত্রের আঘাতে স্ত্রী সহ ৩ জন গুরুতর আহত হয়েছে । রবিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৩ টার দিকে ইউনিয়নের চাঁন্দেরঘোনা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে ।
জানাযায়, ঈদগাও চান্দের গোনা এলাকার কবির আহমদের মেয়ে দক্ষিণ মাইজপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোবিনা আক্তারের সাথে রামু উপজেলার ঈদগড ইউনিয়নের ধুনছাকাটা এলাকার সিকান্দর আলীর ছেলে মনছুর আলমের সাথে ১৫ নভেম্বর ২০১৭ সালে আনুষ্ঠানিক বিয়ে হয় । তাদের সংসারে ২ ছেলে সন্তানের জন্ম হয় ।এ যৌতুক লোভী স্বামী মনছুর স্ত্রীর বেতনের টাকার প্রতি মাসে চেক লিখে নেয় । এরপরও সে বাবার বাড়ি থেকে সম্পত্তি বিক্রি করে টাকা এনে দেওয়ার জন্যে প্রায় ১০ মাস পূর্বে মারধর করে বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয় ।এরপর থেকে সে মোবাইলে যৌতুকের দাবিতে বিভিন্ন হুমকি ধামকি দিয়ে আসছে । ঘটনার দিন সে মোবিনার বাড়িতে গিয়ে বাক বিতন্ডের এক পর্য়ায়ে ক্ষীপ্ত হয়ে স্ত্রী মোবিনাকে লাঠি ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করতে থাকে এ সময় মোবিনার ছোটবোন আরেফা ও বড়বোন গোলবাহার এগিয়ে আসলে তাদেরকে একই ভাবে সন্ত্রাসী কায়দায় মারধর করে । মোবিনা ও বড়বোনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে । এদেরকে রামু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে ।পাষন্ড স্বামী মনছুরকে এলাকার লোকজন দাওয়া করে ধরে মারধর করে পূলিশের কাছে সোপর্দ করতে নিয়ে গেলে পুলিশ মামলার পর আইনি প্রক্রিয়া শুরু করবেন বলে তাকে ছেড়ে দেয় । স্থানীয় মহিলা মেম্বার জন্নতুল ফেরদৌসের সাথে কথা হলে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন ,৩ জন গুরুতর আহত হওয়ার পরও ঈদগাও থানা পুলিশ তাকে ছেড়ে দিয়েছে ।
এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানান আহত শিক্ষক মোবিনার স্বজনরা।
এ বিষয়ে ঈদগাঁও থানার ওসি আব্দুল হালিম বলেন, ঘটনা সম্পর্কে অবগত হয়েছি আঘাত প্রাপ্তরা চিকিৎসা করে আসলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •