নুরুল আমিন হেলালী :

গণ মানুষের সেবা করাই পুলিশ বাহিনীর কাজ। পুলিশী সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যেই চৌফদন্ডীতে বিট পুলিশের কার্যক্রম শুরু করা হচ্ছে। জনগণের সেবা করার উদ্দ্যেশ্যে আমরা পুলিশ বাহিনীতে ঢুকি। জনগণের ট্যাক্সের টাকায় আমাদের সংসার চলে। আমরা প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী হিসেবে জনগণের সুখ-দুঃখের সাথী হওয়া পুলিশের দ্বায়িত্ব ও কর্তব্য। জনগণের বাড়ি বাড়ি গিয়ে সেবা দিতে পুলিশ সবসময় প্রস্তুত। পুলিশের কোন কর্মঘন্ঠা নেই।তবে সঠিক তথ্য দিয়ে পুলিশকে সহযোগিতা করা জনগণের নৈতিক দ্বায়িত্ব ও বটে। সরকারী কর্মচারী হিসেবে পুলিশের কাজ জনগণের সেবা করা।

১৪ ফেব্রুয়ারী (রবিবার) বিকাল ৩টায় কক্সবাজার সদরের চৌফলদন্ডী বাজারে বিট পুলিশিং কার্যালয় উদ্ভোধন ও অপরাধ দমন সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন জলা পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান বিপিএম।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মুনীর উল গিয়াস এর সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মোস্তফা কামাল এমইউপি, চৌফলদ্ডী আ’ লীগ সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান মনির, সভাপতি এহছানুল হক, ঈদগাঁও থানা প্রেস ক্লাব সহ-সভাপতি ও কক্সবাজার একাত্তর পত্রিকার সহ-সম্পাদক নুরুল আমিন হেলালী, সদর আ’লীগ যুগ্ন সম্পাদক বদিউল আলম আমির, সদর আ’লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক মুজিবুর রহমান, কক্সবাজার একাত্তর পত্রিকার প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক চৌফলদন্ডী ইউপির সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ বেলাল উদ্দিন বেলাল, চেয়ারম্যান ওয়াজ করিম বাবুল।

জেলা পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান আরও বলেন, মাদকের সাথে যে অথবা যারা জড়িত থাকবে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।
মাদকের শেকড় উপড়ে ফেলতে কাজ করছে জেলা পুলিশ। এখন কাউকে থানয় গিয়ে টাকা কিংবা দালাল ধরে কোন কাজ করতে হবে না।চৌফলদন্ডীর মানুষের জন্য সবসময় আমার দরজা খোলা থাকবে। অপরাধীদের সঠিক তথ্য দিয়ে পুলিশকে সহযোগিতা করবে তথ্যদাতার নাম সম্পুর্ণ গোপন রাখা হবে। এমনকি সঠিক তথ্য দাতাকে গাড়ি ভাড়াও দেয়া হবে। পুলিশের একার পক্ষে অপরাধ নির্মুল করা সম্ভব নই। পুলিশের পাশাপাশি এলাকার সচেতন মহলকে এগিয়ে আসতে হবে। চৌফলদন্ডী ব্রীজ কেন্দ্রীক গড়ে উঠা অপরাধীদের তালিকা করে শীঘ্রই আইনের আওতায় আনা হবে।

সভপতির বক্তব্যে ওসি মুনীর উল গিয়াস বলেন, চৌফলদন্ডীতে মাদককারবারী, সেবনকারী, ইভটিজারসহ সকল অপরাধীদের বিরুদ্ধে শীঘ্রই অভিযান পরিচালিত হবে। তিনি আরও বলেন, আমাদের আইজিপি স্যার ও এসপি স্যারের নির্দেশনা অনুযায়ী কোন অপরাধীকে ছাড় দেয়া হবে না। আমার থানায় কাউকে টাকা দিয়ে কিংবা দালাল ধরে মামলা করতে হবে না। মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশের জিরু টলারেন্স অব্যাহত থাকবে। অপরাধ যই করুক কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।
অপরাধ দমন সভার সার্বিক তত্বাবধানে ছিলেন চৌফলদন্ডী বিট পুলিশিং কার্যালয়ের ইনচার্জ এসআই মোশারফ হোসেন ও এএসআই মেহেদী হাসান। এসময় আ’লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও এলাকার গণ্যমাণ্য ব্যাক্তবর্গ উপস্থিত ছিলেন। সভা সঞ্চালনা করেন চৌফলদন্ডী ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান ও ইউনিয়ন আ’লীগ নেতা নাছির উদ্দিন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •