cbn  

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:
সম্প্রতি জমি ক্রয়-বিক্রয় সংক্রান্ত অনুমতির কার্যক্রম উপজেলা ভূমি অফিসে ন্যস্ত করা হয়েছে। কিন্তু এতে নানাভাবে দুর্ভোগ বেড়ে গেছে। এর মধ্যে অনুমতি পেতে সময় ক্ষেপণে সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগ হচ্ছে। ফলে জমি রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রম থমকে গেছে। পাশপাশি সরকারি রাজস্ব আদায় চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে। উপজেলা ভূমি অফিস থেকে নিয়ে এসে পুনরায় জেলা প্রশাসক কার্যালয় থেকে অনুমতি দেয়ার জন্য জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দেয়া হয়েছে।

রোববার জেলা ও সদর দলিল লেখক সমিতি পক্ষে এই স্মারকলিপি দেয়া হয়। জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবের রহমানের নেতৃত্বে সদর দলিল লেখক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোরশেদুল হকসহ সমিতির নেতৃবৃন্দ জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশীদকে স্মারক লিপি প্রদান করেন।

স্মারকলিপিতে জানানো হয়, করোনার কারণে জেলায় জমি ক্রয়-বিক্রয়ের হার আগের তুলনায় অনেকাংশে নি¤œমূখী। ফলে বর্তমানে যারা জমি বিক্রয় করছে তা একান্ত বাধ্য হয়ে করছে। যারা বিক্রি করছে তারা চিকিৎসা, বিয়েসহ নানা সমস্যা পড়ে জমি বিক্রয় করছে। কিন্তু উপজেলা ভূমি অফিস থেকে ক্রয়-বিক্রয়ের অনুমতি পেতে সময় ক্ষেপণ হচ্ছে। ফলে মানুষের দুর্ভোগের শেষ নেই। অন্যদিকে ক্রয়-বিক্রয় করতে বিড়ম্বনা সৃষ্টি হওয়ায় দলিল লিখক পেশার সাথে জড়িতরা বেশ বেকায়দায় রয়েছে। এছাড়াও অন্যান্য ব্যবসাখাতে এর বিরূপ প্রভাব পড়ছে।

সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোর্শেদুল হক বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের প্রজ্ঞাপন মতে জেলা প্রশাসক কার্যালয় থেকে জমির ক্রয়-বিক্রয়ের অনুমতি কার্যক্রম সম্পাদন করা একান্ত জরুরী। উপজেলা ভূমি অফিস থেকে অনুমতি নিতে গিয়ে অল্প কয়েকদিনের মধ্যে হয়রানির শেষ পর্যায়ে চলে গেছে। আমরা মাননীয় জেলা প্রশাসকের কাছে আকুল আকুতি জানাচ্ছি, পূর্বের মতো জেলা প্রশাসক কার্যালয় থেকে জমির ক্রয়-বিক্রয়ের অনুমতি দেয় হোক। এতে আমরা হয়রানি থেকে বাঁচবো এবং রাজস্ব আদায় তরান্বিত হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •