নিজস্ব প্রতিবেদক :

কক্সবাজারের ব্যবসায় জগতের ‘পাইওনিয়ার’, জেলা শহরে ব্যবসার অন্যতম গোড়াপত্তনকারি হিসেবে পরিচিত ঐতিহ্যবাহী আল আমিন ষ্টোর ও চৌরঙ্গী কনফেকশনারীর প্রতিষ্ঠাতা রওশন আলী সওদাগরের ৫ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ ১৪ ফেব্রুয়ারি। ২০১৬ সালের এই দিনে তিনি কক্সবাজার শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এই পৃথিবীর মায়া ছেড়ে যান (ইন্তেকাল করেন)। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন।

কক্সবাজার জেলাজুড়ে রওশন আলী সওদাগর নামে পরিচিত আলহাজ¦ রওশন আলীর আদিনিবাস ছিল চট্টগ্রাম জেলার লোহাগড়া উপজেলার পদুয়া এলাকায়। ১৯৫৫ সালের কিশোর বয়সে তিনি ব্যবসায়ের উদ্দেশ্যে কক্সবাজার শহরে আসেন। ইতোপূর্বে তাঁর বাবা আবদুল কাদের ব্যবসায়ের উদ্দেশ্যে কক্সবাজার এসেছিলেন।

কিশোর রওশন আলী কক্সবাজার এসে বাবার সাথে গড়ে তুলেন আল-আমিন স্টোর। এই ব্যবসায় প্রতিষ্টানটি দ্রুত সময়ে সুনামের তার ব্যবসায়িক সমৃদ্ধি করে তুলে। পরে তিনি ১৯৬৪ সালের দিকে কক্সবাজার শহরের প্রধান সড়কে চৌরঙ্গী কনফেকশনারী গড়ে তুলেন।

রওশন আলী সওদাগর ও কুদ্দুস সওদাগর দুই ভাই মিলে আল-আমিন স্টোর ও চৌরঙ্গী কনফেকশনারীকে সবার কাছে পরিচিত করে তুলেছেন। তাদের সেই ঐক্যে গড়া প্রতিষ্টান এখন তাদের সন্তানরা ঐক্যবদ্ধ ভাবে চালিয়ে যাচ্ছেন।

রওশন আলী সওদাগর ব্যবসায়ের পাশাপাশি সাধারণ মানুষের সাথে ভ্রাতৃত্বের বন্ধন গড়ে তুলেছিলেন। যার কারণে মৃত্যুর পরও সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ীরা তাঁকে স্মরণ করেন।

কক্সবাজারে ব্যবসা সম্প্রসারণে রওশন আলী সওদাগর পাইওনিয়ার ও অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন।

রওশন আলী সওদাগরের ছেলে নাছির উদ্দিন জানান, বাবার মৃত্যু বার্ষিকীতে তারা ঘরোয়া ভাবে মিলাদ ও কুরআনখানির আয়োজন করেছেন। প্রতিবছর এই দিনে তাদের বাবা রওশন আলী সওদাগরকে নানা আনুষ্ঠানিকতার মধ্যদিয়ে স্মরণ করা হয়।

তিনি রওশন আলী সওদাগরের আত্মার মাগফেরাতের জন্য সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •