cbn  

মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী 

সর্বস্তরের পাঠকদের ভালোবাসা আর আস্থায় কক্সবাজার জেলার প্রথম অনলাইন নিউজ পোর্টাল coxsbazarnews.com (CBN) সুদীর্ঘ একযুগ পার করে ১৩ বছরে পদার্পণ করলো ।

সিবিএন কর্তৃপক্ষ নিজস্ব একটা কঠোর নীতি সবসময় অনুসরণ করে আজ এ পর্যন্ত আসা। নীতিটা হলো : সঠিক, বস্তুনিষ্ঠ, নিরপেক্ষ, আবেগবিহীন ও তথ্যনির্ভর সংবাদটা দ্রুততম সময়ে সবার আগে সম্মানিত পাঠকের সামনে তুলে ধরা। এ নীতি অনুসরণ করতে গিয়ে অনেকসময় কঠিন, রুঢ় বাস্তবতা ও অপ্রিয় সত্যকে তুলে ধরতে হয়েছে। যাতে সম্মানিত পাঠক বিভ্রত নাহয় ও অন্ধকারে নাথাকে। বিবেকের কাছে সর্বোচ্চ জবাবদিহিতা রেখে, দেশের সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে সিবিএন পরিবার এগিয়ে গেছে পাঠকের অনুপ্রেরণায়। যে সংবাদে ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক ন্যূনতম কোনো উপাদান আছে বলে মনে হয়েছে, তা গুরুত্বপূর্ণ হলেও সিবিএন পরিবার এসব সংবাদ পরিহার করেছে বার বার।

এ নীতি অবলম্বন করতে গিয়ে অনেক স্পর্শকাতর সংবাদ ঢালাওভাবে প্রচার না করে, বিশ্বস্ত ও নির্ভরযোগ্য সুত্র থেকে অধিকতর যাচাই-বাছাই করে প্রয়োজনে একটু সময় নিয়ে সিবিএন-তা পরে প্রকাশ করেছে।

ভাল ও আকর্ষনীয় সংবাদ এর অনেক সংজ্ঞার মধ্যে অন্যতম একটি সংজ্ঞা হলো : Bad news are always good news. অর্থাৎ দুঃসংবাদই সবসময় ভাল সংবাদ। কিন্তু ভাল নিউজের এ সংজ্ঞাকে সিবিএন পরিবার কখনো পুরোপুরি আমলে নেয়নি। সিবিএন পরিবার দুঃসংবাদ, সমস্যা, সংকটের বিষয় গুলোকে সংবাদ আকারে পরিবেশনের পাশাপাশি সম্ভাবনা, আশাব্যঞ্জক, উৎসাহমূলক, উন্নয়ন, কক্সবাজারকে ভিন্ন ভিন্নরূপে তুলে ধরা, বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখা কৃতি ও মেধাবী কক্সবাজারের সন্তান ও প্রতিষ্ঠানকে তুলে ধরা, প্রশাসনিক সংবাদ ও সমৃদ্ধিমূলক কর্মকে এগিয়ে নিয়ে যেতেও সিবিএন পরিবার কোন সময়ই কার্পণ্য করেনি। বৈশ্বিক মহামারি করোনাকালীন সময়ে প্রকাশ করা সংবাদের মতো সিবিএন মানবিক সংবাদগুলোকেও অধিক গুরুত্ব দিয়েছে সবসময়। মহান মুক্তিযুদ্ধের প্রত্যাশা ও অর্জনকে বুকে ধারণ করে এবং অগাধ দেশপ্রেমবোধ নিয়ে সিবিএন পরিবার এর প্রত্যেক সদস্য কাজ করে যাচ্ছে নিরন্তর।

কোন বিশেষ রাজনৈতিক আদর্শ, গোষ্ঠী, সম্প্রদায় বা মতকে সিবিএন অযাচিত ও অযৌক্তিকভাবে কোনসময় প্রাধান্য দেয়নি। যখন যাকে যতটুকু প্রয়োজন, শুধু ততটুকুই তুলে ধরতে নিরন্তর চেষ্টা ছিলো সিবিএন এর। সিবিএন-কে কোন আদর্শ বা গোষ্ঠীর লিফলেট বানাতে চায়নি। বিষয়টা আপেক্ষিক হওয়ায় সিবিএন এর অনেক সম্মানিত পাঠক মাঝেমধ্যে এ নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করলেও সিবিএন অনঢ় ছিলো এ নীতিতে।

সিবিএন-এ অনেক প্রকাশিত সংবাদ শতভাগ তথ্যনির্ভর, সঠিক এবং সত্য হলেও কক্সবাজার, রাষ্ট্রের কিংবা বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর স্বার্থে আঘাত হানার আশংকা রয়েছে, এরকম সংবাদ সিবিএন থেকে প্রত্যাহার করতে দ্বিধা করেনি সিবিএন কর্তৃপক্ষ। তাছাড়া বিদেশী নাগরিক, বিদেশি প্রতিষ্ঠান বা আন্তর্জাতিকভাবে নিউজের গুরুত্ব থাকা নিউজ গুলোকে সিবিএন বাংলা ভাষার পাশাপাশি ইংরেজি ভাষাতেও অনুবাদ করে প্রকাশ করে থাকে। সম্মানিত পাঠকদের ভিন্ন স্বাদ দিতে কলাম, গল্প, প্রবন্ধও সিবিএন এ নিয়মিত প্রকাশ করা হয়।

এসব কিছু মেনে চলে, অনেক সীমাবদ্ধতা, অনেক রূঢ় পারিপার্শ্বিকতা সত্বেও সবসময়ই সম্মানিত পাঠককে সেরাটা উপহার দিতে চেয়েছে সিবিএন পরিবার। তারপরও অনেক সম্মানিত পাঠক সিবিএন এর কিছু কিছু সংবাদে হয়ত পুরোপুরি সন্তুষ্ট হতে পারেনি, তাঁদের প্রত্যাশিত হয়নি। কিন্তু উল্লেখিত নীতির কাছে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ও সম্মানিত পাঠকদের কাছে সিবিএন পরিবার এর প্রত্যেক সদস্য দায়বদ্ধ থাকায় চলতে হয়েছে একই সীমারেখার মধ্যেই। এ লেখা তাদের জন্যই কৈফিয়ত স্বরূপ।

সিবিএন এর এই কঠোর নীতির কারণে পাঠকের নির্ভরতা, আস্থা ও ভালোবাসার ব্যারোমিটারের পারদ সবসময় উর্ধবমূখী ছিলো বলে দৃঢ় বিশ্বাস। তাতে সিবিএন পরিবার প্রেরণা ও প্রত্যয়ে সমৃদ্ধ হয়েছে নিঃসন্দেহে। এটাই সিবিএন পরিবারের বিশাল প্রাপ্তি ও সন্তুষ্টি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •