cbn  

ইমরান হোসাইন:
সামাজিক বনায়নের মাধ্যমে একদিকে যেমন সবুজ বিপ্লব ঘটছে, অন্যদিকে দারিদ্র্য বিমোচনও ঘটছে। বিশ্বব্যাপী প্রকৃতি ও পরিবেশ-প্রতিবেশ স্বাভাবিক রেখে এ ধরণীকে প্রাণিকুলের বাসযোগ্য রাখতে প্রাকৃতিক বনাঞ্চলের সংরক্ষণ ও উন্নয়ন করতে হবে। বাংলাদেশ পৃথিবীর একটি অন্যতম ঘনবসতিপূর্ণ দেশ। অধিক জনসংখ্যা ও দারিদ্র্য বনাঞ্চল সংরক্ষণের প্রধান অন্তরায়। এ প্রেক্ষাপটে বৃক্ষরোপণের মাধ্যমে বৃক্ষসম্পদ বৃদ্ধির কোনো বিকল্প নেই।

বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে পেকুয়া উপজেলার শিলখালী ইউনিয়নের জারুলবুনিয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে সামাজিক বনায়নের উপকারভোগীদের মাঝে লভ্যাংশের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের সংসদ সদস্য জাফর আলম।

তিনি আরো বলেন, বন খাতের উন্নয়নে সরকারের সব ধরনের প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে। বৃক্ষরোপণ ও পরিচর্যায় আরও সচেষ্ট হওয়ার জন্য আমি সকলের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ বনবিভাগের আওতাধীন বারবাকিয়া রেঞ্জের উদ্যোগে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোঃ সফিকুল ইসলাম, অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন রেঞ্জ কর্মকর্তা আব্দুল গফুর মোল্লা, বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোতাছেম বিল্যাহ্, কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য এসএম গিয়াস উদ্দিন ও পেকুয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম।

উক্ত অনুষ্ঠানে ২০০৩-০৪ সালে ৪০ হেক্টর করে সৃজিত পৃথক দুইটি সামাজিক বনায়নের উপকার ভোগী ৭৫ জনকে লভ্যাংশের মোট ৫৭ লাখ টাকা প্রদান করা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •