cbn  

আবদূর রহমান খান

আমেরিকার নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন কাশ্মীর সমস্যার একটা আশু সমাধান চান বলে আজ এক খবর পরিবেশন করেছে কাশ্মীর মিডিয়া সার্ভিস ।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র জেড তারার -এর বরাদ দিয়ে ওয়াশিংটন থেকে পরিবেশিত এ খবরে বলা হয়েছে, জো বাইডেন তার সাথে সাসাক্ষাৎকারে বলেছেন, কাশ্মীর হচ্ছে একটি মানাধিকারের বিষয়; আর মানাধিকার হচ্ছে আমেরিকার জন্য একটি মৌলিক ব্যাপার।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর এ সময় ভারতের মোদি সরকারের প্রতি। আনুরোধ করেছেন, কাশ্মীরি নাগরিকদের স্বাধীনভাবে মতামত প্রকাশের স্বার্ত্থে ইন্টারনেট প্রতিবন্ধকতা তুলে নেবার জন্য ।

একই সাথে, ভারত ও পাকিস্তানকে মার্কিনের ঘনিষ্ট সহযোগী বলে উল্লেখ করে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর দুই প্রতিবেশী দেশকে অনুরোধ করেছে, তারা যেন কাশ্মীরের লাইন অফ কন্ট্রোল বরাবর উত্তেজনা কমিয়ে আনে এবং সমস্যা সমাধানে ইতিবাচক সংলাপ শুরু করে।

এর আগে, নিউ ইয়র্ক রাজ্য সভা ৫ ফেব্রুয়ারিকে কাশ্মির-আমেরিকান দিবস হিশেবে ঘোষণা দিয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে এই প্রথম নিউ ইয়র্ক অঙ্গ রাজ্য এসেম্বলিতে এ দিবসটি স্বীকৃতি দেওয়া হল।

নিউ ইয়র্ক অঙ্গ রাজ্য এসেম্বলির সদস্য নাদের সায়েগ সহ ১২ জন সদস্যের পক্ষ থেকে এ প্রস্তাবটি সংখ্যাগরিষ্ট ভোটে অনুমোদন লাভ করে। এ প্রস্তাবে বলা হয়েছে, যে,

The resolution, sponsored by Assembly member Nader Sayegh and 12 other lawmakers, states that the “Kashmiri community has overcome adversity, shown perseverance and established themselves as one of the pillars of the New York immigrant communities.”

It adds that “the State of New York endeavours to champion human rights including the freedom of religion, movement and expression for all Kashmiri people, which are embedded within the US Constitution, through the recognition of diverse cultural, ethnic and religious identities.”

উল্লেখ্য, গত জুলাই মাসে মার্কিন নির্বাচনি তৎপরতার মধ্যে, ডেমোক্র্যাটিক পার্টি পাকিস্তানি-আমেরিকান সম্প্রদায়ের কাছে ওয়াদা করেছিল যে, জো বাইডেন নির্বাচিত হলে আমেরিকা কাশ্মির সমস্যার সমাধানে এবং বিশেষ করে ভারতে মুসলমানদের উপর নির্যাতন বন্ধ করতে বিশেষ ভুমিকা রাখবে।

এর পরে গত নভেম্বরেও ডেমোক্রাট দলিয় প্রার্থি জো বাইডেন মুসলমানদের জন্য তার অঙ্গিকারে কাশ্মিরিদের অধিকার রক্ষার প্রতি সমর্থন জানান।

০৭ ফেব্রুয়ারি

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •