cbn  

আলমগীর মানিক,রাঙামাটি :
চেক জালিয়াতির মামলায় রাঙামাটিতে এক স্বাস্থ্যকর্মীকে গ্রেফতার করেছে বাঘাইছড়ি থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃত শাহাদাৎ হোসেন বাঘাইছড়ি উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগে ষ্টোর কিপার পদে চাকুরি করতো বলে থানা সূত্র জানিয়েছে। এদিকে শাহাদাৎ বর্তমানে সাময়িক বরখাস্ত অবস্থায় রয়েছে বলে তার কর্মস্থল সূত্রে জানাগেছে। বাঘাইছড়ির বারবিন্দু ঘাট এলাকার বাসিন্দা লিটন চাকমা বাদী হয়ে রাঙামাটির আদালতে ২৫-৮-২০২০ তারিখে জালিয়াতির এই মামলা করেন।
বাঘাইছড়ি থানার এসআই রানা বড়ুয়ার নেতৃত্বে বৃহস্পতিবার বিকেলে তাকে উপজেলা সদর বাজার থেকে গ্রেফতার করা হয়। আটক শাহাদাৎ হোসেন বাঘাইছড়ি পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের পুরাতন মারিশ্যা গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা এনতাজ আলীর ছেলে বলে নিশ্চিত করেছেন বাঘাইছড়ি থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই মোঃ আসাদুজ্জামান।
মামলার বাদী লিটন চাকমা জানান, শাহাদাৎ হোসেন তার স্ত্রী নিশি চাকমাকে পরিবার পরিকল্পনা বিভাগে স্বাস্থ্য সহকারী পদে চাকরীর প্রলোভন দেখিয়ে ২০ লক্ষ টাকা নেয় শাহাদাৎ। কিন্তু চাকুরী না হওয়ায় টাকা ফেরত চাইলে গড়িমসি করে পরে স্থানীয় মুরুব্বি ও নেতাকর্মীদের মধ্যস্থতায় সালিশের মাধ্যমে তার নিজ নামে সোনালী ব্যাংক বাঘাইছড়ি শাখায় শাহাদাৎ হোসেন হিসাব-নং (১০৮০০১০৮৫) নাম্বারে ২০ লক্ষ টাকার চেক প্রদান করে কিন্তু নির্ধারিত সময়ে টাকা উত্তোলন করতে গিয়ে দেখা যায় তার হিসাব নাম্বারে কোন টাকা নেই তাই এক প্রকার বাধ্য হয়ে আদালতের শরনাপন্ন হই।
বাদি জানান, এই একই মামলায় আগেও একবার পুলিশের হাতে আটক হয়ে হাজতবাস করেছিলো শাহাদাৎ হোসেন। সেসময় রাঙামাটি পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ কর্তৃপক্ষ তাকে সাময়িক বরখাস্ত করে যা এখনো বলবৎ রয়েছে বলে জানাগেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •