ফরিদুল আলম দেওয়ান, মহেশখালী:
জেলা সদরের সাথে মহেশখালী দ্বীপের স্থল যোগাযোগ স্থাপনের লক্ষ্যে মহেশখালী চ্যানেলের ওপর একটি সেতু নির্মাণের দাবি দীর্ঘদিনের। অবশেষে সেই দাবি বাস্তবায়নে আশার সঞ্চার হচ্ছে।
৩ ফেব্রুয়ারি মহেশখালী কক্সবাজার নদীপথে মহেশখালী চ্যানেল এর উপর সেতু স্থাপনের জায়গা পরিদর্শনে মহেশখালীতে এসেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় এর সেতু বিভাগ এর সচিব মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন এর নেতৃত্বে উচ্চ পর্যায়ের একটি দল। পরিদর্শক দলটি সকাল ১০ টায় মহেশখালীর আদিনাথ জেটি ঘাট, পুরাতন জেটি ঘাট ও গোরকঘাটা চরপাড়ার সী-বীচ এলাকা সরজমিন পরিদর্শন করেন।
পরিদর্শন শেষে  সেতু সচিব মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন জানান, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় মহেশখালীর সাথে কক্সবাজার জেলা সদরের সংযোগ সেতু স্থাপনের জায়গা নির্নয়ের নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কার্যক্রম গ্রহণ করেছে  সেতু মন্ত্রণালয়। দ্রুত সময়ের মধ্যে সেতু মন্ত্রণালয়ের একটি কারিগরি দল সেতু স্থাপনের সম্ভাব্যতা যাচাই করবেন।  ৩ কিলোমিটারের দৈর্ঘ্যের এ সেতুটি নির্মানে সরকারের বিশাল পরিকল্পনা গ্রহণ করা প্রয়োজন। স্থানীয় মানুষের চাহিদা ও সরকারের দীর্ঘ মেয়াদি উন্নয়ন পরিকল্পনার অংশ হিসেবে কক্সবাজারের সাথে মহেশখালীর সংযোগ সেতু স্থাপন করার পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে।
পরিদর্শন দলে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মহেশখালী কুতুবদিয়ার সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক,সেতু মন্ত্রণালয়ের পরিচালক (ডেভেলফমেন্ট) ড. মোঃ মনিরুজ্জামান, প্রধান প্রকৌশলী কাজী মোহাম্মদ ফেরদাউস, উপ-সচিব রাহিমা আক্তার, তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মোঃ আবুল হোসেন, মোহাম্মদ তোফাজ্জল হোসেন, মোঃ ওয়াহিদুজ্জামান, সচিবের একান্ত সচিব এস,এম মাজহারুল ইসলাম, মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাহফুজুর রহমান, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মুহাম্মদ ইসহাক, মহেশখালী উপজেলা প্রকৌশলী সবুজ কুমার দে প্রমূখ।
উল্লেখ্য, মহেশখালী-কক্সবাজার ফেরিঘাটের অব্যবস্থাপনা দূরীকরণ, নিরাপদে নৌ পারাপার নিশ্চিত ও মহেশখালী চ্যানেলের ওপর সেতু নির্মাণের দাবীতে গত ১ অক্টোবর ‘মহেশখালী উন্নয়ন পরিষদ’ ও ‘সেতু চাই আন্দোলন মহেশখালী’ নামের দুটি সংগঠনের যৌথ উদ্যোগে মহেশখালী উপজেলা সদরে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল সহকারে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •