মো. নুরুল করিম আরমান, লামা:
বান্দরবানের লামা উপজেলায় ছোট ভাইয়ের বিরুদ্ধে আপন বড় ভাইয়ের জায়গা জবর দখল চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার আজিজনগর ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি ধুইল্যাপাড়া গ্রামে। আবুল হাশেম (৬৫) তার বড় ভাই মোস্তাক আহমদের (৭৮) জায়গায় জোর করে ঘর নির্মাণের মাধ্যমে এ জবর দখলের চেষ্টা করছেন। এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে মোস্তাক আহমদ বাদী হয়ে ছোট ভাই আবুল হাশেমসহ তিনজনকে বিবাদী করে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে যে কোন সময় অপ্রীতিকর ঘটনার আশঙ্কা রয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

জানা যায়, ১৯৮২-৮৩ সালে ৩০৭নং চাম্বি মৌজার আর/২৯৪২নং হোল্ডিং মূলে চার একর দ্বিতীয় শ্রেণীর জায়গা বন্দোবস্তি পায় ধুইল্যাপাড়ার বাসিন্দা মৃত দলিলুর রহমানের বড় ছেলে মোস্তাক আহমদ। বন্দোবস্তির পর তিনি বহু অর্থ ও কায়িক পরিশ্রমের মাধ্যমে আবাদ করে ওই জায়গা পরিবার পরিজন নিয়ে ভোগ করে আসছেন। বর্তমানে বাজার মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় ওই জায়গার ওপর আপন ছোট ভাই ও তার ছেলেদের লোলুপ দৃষ্টি পড়ে। জায়গা দখলে নিতে বিভিন্ন সময় অপচেষ্টা শুরু করেন আবুল হাশেম ও তার ছেলেরা। এ নিয়ে মোস্তাক আহমদ ২০১৭ সালের ১৭ মে উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্টে্িরট আদালতে নিষেধাজ্ঞা মামলা করেন (মামলা নং-৭২/২০১৭)। বর্তমানে মামলাটি চলমান। কিন্তু মামলা উপেক্ষা করে গত ২৫ জানুয়ারী সকাল ১০টার দিকে আবুল হাশেমসসহ অন্যরা সংঘবদ্ধ হয়ে জায়গা জবর দখলের উদ্দেশ্যে পাকা ঘর নির্মাণ কাজ শুরু করেন। খবর পেয়ে মোস্তাক আহমদ বিষয়টি স্থানীয় চেয়ারম্যান মো. জসিম উদ্দিনকে জানান। আদালতে মামলা চলমান বিধায় চেয়ারম্যান তাৎক্ষনিকভাবে গ্রাম পুলিশের মাধ্যমে আবুল হাশেমকে ঘর নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখার জন্য নির্দেশ দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মোস্তাক আহমদ ও তার ছেলে ছৈয়দ আহমদকে বিভিন্ন হুমকি দেন ছোট ভাই আবুল হাশেমসহ অন্যরা।

এদিকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক স্থানীয় বাসিন্দা বলেন, এতদিন জানতাম বিরোধীয় জায়গা মোস্তাক আহমদের। কিন্তু সম্প্রতি ওই জায়গা আবুল হাশেম দাবী করে দখল দেখাতে ঘর নির্মাণ করছেন। জায়গা দখল-বেদখলকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ নিয়ে যে কোন সময় অপ্রতিকর ঘটনাও ঘটতে পারে বলেও আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা। এদিকে বিরোধীয় জায়গায় ঘর নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখার জন্য আবুল হাশেমকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে জানান আজিজনগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. জসিম উদ্দিন।

বিরোধীয় জায়গায় ঘর নির্মাণ চেষ্টার সত্যতা স্বীকার করে অভিযুক্ত আবুল হাশেম বলেন, কারো জমিতে নয়; আমি আমার জায়গাতে ঘর নির্মাণ করছি। বড় ভাই মোস্তাক আহমদের অভিযোগ সত্য নয়।

এ বিষয়ে লামা থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক নিপুন দে বলেন, মোস্তাক আহমদের অভিযোগ পেয়েছি। যেহেতু বিষয়টি নিয়ে আদালতে নিষেধাজ্ঞা মামলা চলমান সেহেতু আদালতের নির্দেশ মানতে হবে। কেউ আদালতের নির্দেশ অমান্য করলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •