cbn  

এইচ.কে রফিক উদ্দিন:
কক্সবাজারের উখিয়া একটি জনবহুল উপজেলা। রোহিঙ্গা অধ্যুষিত এলাকা হওয়ায় জনদুর্ভোগ চরমে, বেড়ে গেছে প্রচুর বাজারের চাহিদা। মানছেনা নিয়ম-নীতি গড়ে তুলেছে সড়কের উপর বাজার।ব্যস্ত সড়কে বাজার বসাতে ভোগান্তি পোহাতে হয় ক্রেতা-বিক্রেতা,যানবাহন সহ পথচারীদের।

বিশেষ করে উখিয়ার কুুতুপালং মূল সড়কের দু’পাশে যত্রতত্র পণ্য রেখে বেচা-বিক্রি ও রাস্তার মাঝখানে ট্রাক, জীপ রেখে পণ্য ওঠা-নামা করার কারণে প্রতিদিনই সড়কের উপর প্রচুর ভিড় ও জটলা তৈরি হয়,ফলে রোগীবাহী গাড়ি ও জনসাধারণের চলাচলে বিরাট সমস্যা দেখা দেয়, এলাকার মানুষকে পোহাতে হয় নানা দুর্ভোগ।কারণ এটি পৃথিবীর বৃহত্তর শরণার্থী ক্যাম্প সহ কক্সবাজার থেকে টেকনাফে যাওয়ার একমাত্র বিরতিহীন গাড়ি চলাচলের রাস্তা।

স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান,রোহিঙ্গা আসাতে জনসংখ্যা বৃদ্ধির ফলে সব ধরনের যাতায়াত এই রাস্তা দিয়ে হয়। এ কারণে যানবাহনের ভিড় লেগেই থাকে। তার উপর হাটবাজারও বসে সড়কের উপর।প্রতিদিন হাট-বাজার হওয়াতে ময়লা-আবর্জনার স্তূপও জমে থাকে।
স্থানীয়দের প্রত্যাশা, হাট-বাজার অন্যত্রে সরিয়ে নিলে জনদুভোর্গ লাগবে এগিয়ে এসে স্থায়ী সমাধান দেবে।

কুতুপালং বাজার কমিটির সভাপতি ও স্থানীয় মেম্বার ইঞ্জিনিয়ার হেলাল উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন,যারা কমিটির সিদ্ধান্ত অমান্য করে রাস্তার উপর কাঁচা মালামাল রাখে তাদেরকে সতর্ক করা হয়েছে।এছাড়া রাস্তার নির্মিত দোকান উচ্ছেদ ও যত্রতত্র গাড়ি পার্কিং বন্ধ করার জন্য প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •