মোঃ জয়নাল আবেদীন টুক্কু:
মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থানের পর বাংলাদেশ মিয়ানমার সীমান্তে নিরাপত্তা জোরদার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। সোমবার (১ ফেব্রুয়ারি) ভোর থেকেই সীমান্তের গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন পয়েন্টে বিজিবি সর্তক অবস্থানে রয়েছে। পাশা পাশি সীমান্তের বিভিন্ন চৌকি গুলোতে বিজিবির অতিরিক্ত সদস্য সংখ্যাও বাড়ানোর কথাও সংশ্লিষ্ট একটি সূত্রে জানাগেছে।

তবে সীমান্তে যাতে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সেদিকে দৃষ্টি রেখে বিজিবি সদস্যরা সীমান্ত চৌকি গুলোতে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। বিশেষ করে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার দৌছড়ি,পানছড়ি, ঘুনধুম, তুমব্রু, চাক ঢালা ও কক্সবাজারের টেকনাফ সীমান্তে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে।

কক্সবাজার ৩৪ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আলী হায়দার জানিয়েছেন, সীমান্তে বিজিবি সতর্ক অবস্থায় থেকে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে। সীমান্তে যাতে যে কোনো ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সেদিকে লক্ষ্য রাখছে বিজিবি।

বিজিবির কক্সবাজার রিজিয়নের রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাজেদুর রহমান জানিয়েছেন সীমান্ত পরিস্থিতি সম্পর্কে খোঁজখবর রাখা হচ্ছে। নাইক্ষ্যংছড়ি ১১ বিজিবির অধিনায়ক ও জোন কমন্ডার লেঃ কর্ণেল আব্দুল আজিজ আহম্মদে জানান নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্ত জুড়ে বিজিবি সর্বোচ সর্তক অবস্থানে রয়েছে।

উল্লেখ্য সোমবার (১ ফেব্রুয়ারি) ভোরে বাংলাদেশ পার্শ্ববর্তী মিয়ানমারে সেনাঅভ্যুত্থানে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীসহ বেশ কিছু নেতাদের আটক করেছে সেনাবাহিনী। পুরো দেশটির সেনাবাহিনীর নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •