অনলাইন ডেস্ক :  করোনা পরিস্থিতির কারণে ২০২০ সালের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা ফল বিশেষ পদ্ধতিতে প্রকাশ করা হবে। অন্যান্য বছরের মতো পরীক্ষাকেন্দ্র বা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফল পাঠানো হবে না। ফল পেতে যারা প্রি-রেজিস্ট্রেশন করেছেন তাদের মোবাইলে পাঠিয়ে দেওয়া হবে। এছাড়া টেলিটকের ওয়েবসাইট, ১১টি শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইটে একসঙ্গে ফল প্রকাশ করা হবে। তাই ফল প্রকাশের দিন কোনো শিক্ষার্থীকে পরীক্ষাকেন্দ্র বা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান না যাওয়ার অনুরোধ করেছে শিক্ষা বোর্ডগুলো।

বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) শিক্ষাবোর্ড থেকে এ ধরনের নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

নির্দেশনাগুলো হলো- এবার ফল অনলাইনে প্রকাশিত হবে। পরীক্ষা কেন্দ্রে অথবা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কোনো ফল পঠানো হবে না। কাজেই কোনো অবস্থাতেই ফল প্রকাশের দিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জমায়েত হওয়া যাবে না।

মোবাইলে ফল পেতে প্রি-রেজিস্ট্রেশন

এসএমএসের মাধ্যমে ফল পেতে যারা ইচ্ছুক তাদেরকে ফল প্রকাশের আগেই প্রি-রেজিস্ট্রেশন করতে হবে: HSC< >Board name (First 3 letter) <> Roll<>2020 টাইপ করে 16222 নম্বরে পাঠাতে হবে। ফল প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গেই প্রি-রেজিস্ট্রেশন করা পরীক্ষার্থীদের মোবাইল নম্বরে তাদের ফল পৌঁছে যাবে।

টেলিটক ওয়েবসাইট (www.educationboardresults.gov.bd) থেকে ফল জানা যাবে। এছাড়া সংশ্লিষ্ট শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট থেকেও ফল জানা যাবে।

গত ৭ জানুয়ারি টেলিটক বিজ্ঞপ্তি দিয়ে ২০২০ সালের এইচএসসি পরীক্ষার ফল পেতে প্রি-রেজিস্ট্রেশন শুরু করার জন্য শিক্ষার্থীদের আহ্বান জানায়। এতে বলা হয়, যারা প্রি-রেজিস্ট্রেশন করবে তারা ফল প্রকাশের দিন ঘরে বসেই তা সংগ্রহ করতে পারবে।

বলা হয়, রেজিস্ট্রেশন করতে হবে মোবাইলের ম্যাসেজ অপশনে গিয়ে HSC লিখে স্পেস দিয়ে শিক্ষাবোর্ডের নাম, রোল নম্বর স্পেস দিয়ে ২০২০ লিখে 16222 নম্বরে পাঠিয়ে দিতে হবে।

করোনার মধ্যে সর্বশেষ এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল ও ডিজিটাল পদ্ধতিতে প্রকাশ করা হয়। ওই পরীক্ষার পর যারা প্রি-রেজিস্ট্রেশন করেছিল তাদের মোবাইল এবং শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইটে দেওয়া হয়।

২০২০ সালের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল আগামী রোববার (৩১ জানুয়ারি) প্রকাশ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। বুধবার (২৭ জানুয়ারি) শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ফল প্রকাশের প্রস্তাব পাঠানো হয়। আগামী রোববার প্রধানমন্ত্রী সময় দিতে পারবেন এমন বার্তা পাওয়ার পর মন্ত্রণালয় থেকে ওইদিন সময় চাওয়া হয়েছে।

এদিকে, ফল প্রকাশের শেষ মুহূর্তে এসে ফলপ্রার্থীদের জন্য সংশ্লিষ্ট শিক্ষাবোর্ড থেকে ৪টি অতি জরুরি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে সরকারি স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফল সংগ্রহ করতে বলা হয়েছে।

এদিকে মঙ্গলবার (২৬ জনুয়ারি) রাতে বিশেষ পদ্ধতিতে ফল প্রকাশের জন্য শিক্ষাবোর্ডকে ক্ষমতা দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। ফলে ফল প্রকাশ করতে শিক্ষাবোর্ডের আর কোনো বাধা রইল না।

বুধবার (২৭ জানুয়ারি) শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি সাংবাদিকদের বলেছেন, শিক্ষাবোর্ডকে ফল প্রকাশের সব ধরনের ক্ষমতা দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। ফলে এইচএসসি ফল প্রকাশে আইনি কোনো জটিলতা নেই। আমরা শিগগিরই ফল প্রকাশ করব।

নির্দিষ্ট তারিখ জানতে চাইলে তিনি বলেন, চলতি মাসেই ফল প্রকাশিত হবে। এজন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে সময় চাওয়া হয়েছে।

-পূর্বপশ্চিমবিডি

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •