সংবাদদাতা:
বালু বোঝাই একটি ট্রাক থেকে একটি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করেছে নাইক্ষ্যংছড়ি ১১ বিজিবির একটি দল। এই ঘটনায় তিনজনকে আটক করা হয়েছে।
রোববার (২৪ জানুয়ারি) রাত ৯টার দিকে এক অভিযান চালানো হয়।
আটককৃতরা হলেন, ট্রাকের চালক চট্টগ্রামের আজিজ নগরের বাসিন্দা মোঃ ইউনুছ ও হেল্পার এবং চকরিয়া খুটাখালী ফরেস্ট অফিস এলাকার বাসিন্দা বালু ব্যবসায়ী হেলাল উদ্দীন।
নাইক্ষ্যংছড়ি ১১ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্ণেল শাহ আবদুল আজিজ আহামদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানিয়েছেন, বাইশারী হয়ে যাওয়ার পথে কক্সবাজারগামী ট্রাকটিকে সংকেত দেয়া হয়। থামিয়ে তল্লাশি করে ট্রাকের বালুর ভেতর থেকে একটি এলজি উদ্ধার করা হয়।

তবে জব্দ করা ট্রাকের শ্রমিক জসিম উদ্দীন জানান, খুটাখালী থেকে বালু ভর্তি করে তিনজন শ্রমিক এবং চালক, হেল্পার ও ব্যবসায়ীসহ ছয়জন নিয়ে কক্সবাজারের কলাতলী যাচ্ছিল। পথিমধ্যে খরুলিয়া বাজারের মধ্যখানে গেলে মোটরসাইকেলবাহী বিজিবির সদস্যরা ট্রাকটির থামায়। বেশ কিছুক্ষণ উভয় পক্ষের কথা বলার পর ছয়জনসহ বালু ভর্তি ট্রাকটি নিয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে গিয়ে ওই ট্রাকের বালুর ভেতর থেকে একটি আগ্নেয়াস্ত্র পাওয়া যায়। তবে রাতেই তিন শ্রমিককে ছেড়ে দিয়ে চালক, হেল্পার ও বালু ব্যবসায়ীকে আটক রাখা হয়।
খরুলিয়া বাজারের প্রত্যক্ষদর্শী ব্যবসায়ীরাও এই ঘটনার কথা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

আটক বালু ব্যবসায়ী হেলাল উদ্দীনের পরিবারের লোকজন জানিয়েছেন, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে হেলাল উদ্দীনকে ফাঁসাতে এলাকার একটি প্রতিপক্ষ গাড়িতে অস্ত্র লুকিয়ে রাখে এবং বিজিবিকে ভুল তথ্য দিয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •