প্রকাশ: ২৪ জানুয়ারী, ২০২১ ১০:৩৬

পড়া যাবে: [rt_reading_time] মিনিটে


সতীর্থ-৭১ এর প্রীতি সম্মেলন উপলক্ষে স্মরণিকার জন্য লেখা আহবান
সংবাদ বিজ্ঞপ্তি:
আমরা যারা ষাটের দশকে মাধ্যমিকের শিক্ষার্থী ছিলাম তাদের কৈশোর ও যৌবন্মুখ জীবনের এক আলোড়ন সৃষ্টিকারী সন্ধিক্ষণের নাম একাত্তর। বিদ্যালয়ের চার-দেয়ালের নিয়মবাঁধা চলার জীবনে এক অভূতপূর্ব ছন্দপতন ঘটেছিল তখন। বাঙালির জীবনে এবং এ অঞ্চলের জাতি-ধর্ম-শ্রেণি নির্বিশেষে সকলের জীবনে নেমে এসেছিল এক অমানিশা। সেই অমানিশা ভেদ করে যে লাল সূর্য উদিত হয়েছিল তার নাম একাত্তর।

ষাটের দশকের সেই চঞ্চল কিশোরদের মাথায় একাত্তরের লাল সূর্যের মুকুট পরে যারা কলেজের প্রাঙ্গনে পদার্পন করেছিল তারা আজ প্রৌঢ় এবং জীবন চলার পথের দিগন্ত ছুঁয়ে চলেছে ভবিষ্যতের গন্তব্যে। অনেকে আজ আমাদের চারপাশে নেই। কক্সবাজার জেলার নানা প্রান্তে বা তার বাইরে সেই সতীর্থগণ যাঁরা রয়েছেন তাদের অন্তরঙ্গ সান্নিধ্যের লক্ষ্যে এক প্রীতি- সম্মিলন আহবানের নিমিত্ত এবং আমাদের জীবনের একাত্তরের স্মৃতিবহ রোমাঞ্চকর গৌরব গাঁথামাখা এক মঞ্চের নাম ‘সতীর্থ-৭১’।

সতীর্থ-৭১ এর আহবানে সহসায় এক প্রীতি সম্মেলন অনুষ্ঠানের আয়োজন করাই এর প্রাথমিক উদ্দেশ্য। দ্বিতীয় উদ্দেশ্য : সতীর্থ-৭১এর ছায়াতলে পরস্পরের সংযোগ ও সম্পর্কের পুনরুজ্জীবন। তারই লক্ষ্যে একটি রেজিস্ট্রেশন ফরম সতীর্থ-৭১ এর পক্ষ থেকে তৈরি করা হয়েছে যাতে সকলকে রেজিস্ট্রেশনে অন্তর্ভুক্ত করে নেওয়া যেতে পারে। সবকিছু পরিচালনার জন্য একটি বাস্তবায়ন কমিটি ও তার অধীনে বিভিন্ন উপ-কমিটি গঠন করা হয়েছে। প্রীতি সম্মিলন উপলক্ষে সতীর্থ একাত্তরে তালিকাভুক্ত সতীর্থদের পরিচিতি ও লেখা সংবলিত এক স্মরণিকা প্রকাশ করা হবে।

সতীর্থ-৭১ এর প্রীতি সম্মেলন উপলক্ষে স্মরণিকার জন্য লেখা ও লিখিত জীবন-বৃত্তান্ত আহবান।

সতীর্থ-৭১ এর প্রীতি সম্মেলন উপলক্ষে রেজিস্ট্রেশনভুক্ত সকল সদস্যের নিকট থেকে একটি পাসপোর্ট সাইজের ছবি, সংক্ষিপ্ত জীবন বৃত্তান্ত ও লেখা আহবান করছে। পাঠানোর ঠিকানা :

মকবুল আহমদ, আহ্বায়ক, স্মরণিকা উপ-কমিটি, ই-মেইল : moqbul.coast@gmail.com বা মুহম্মদ নূরুল ইসলাম, সভাপতি, সতীর্থ-৭১ সম্মিলন ও মিলনমেলা বাস্তবায়ন কমিটি, চৌধুরী কুঠির, এন্ডারসন রোড, কক্সবাজার। ই-মেইল : islamcox56@gmail.com

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •