বার্তা পরিবেশক:
রামুতে সৎ ভাইদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজিসহ একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি এবং প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ উঠছে। আবদুল মাজেদ চৌধুরী নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে এই অভিযোগ করা হয়েছে।

এই বিষয়ে আইনগত প্রতিকার চেয়ে গত ১৮ জানুয়ারী প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী, মহাপরিচালক বাংলাদেশ পুলিশ, বিভাগীয় কমিশনার চট্টগ্রাম, পুলিশ সুপার কক্সবাজার, অধিনায়ক র্যাব-১৫ কক্সবাজার বরাবর লিখিত অভিযোগ দেন তার সৎ ভাই ভুক্তভোগী রিদুয়ানুল হক চৌধুরী (সম্রাট)।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায় ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের অফিসেরচর লামার পাড়া এলাকার সম্ভ্রান্ত পরিবার মরহুম সুলতান আহাম্মদ চৌধুরীর ছেলে রিদুয়ানুল হক চৌধুরী সম্রাট গং তাদের পৈতৃক সূত্রে পাওয়া জমি দীর্ঘ দিন পর্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে ভোগ দখলে আছে। দীর্ঘ দিন ধরে ভোগ দখলে থাকা সত্ত্বেও তাদেরকে বিবাদী বানিয়ে একের পর এক মিথ্যা মামলা করে শুধু ক্লান্ত হয়নি বর্তমানে প্রাণনাশের হুমকি ও দিচ্ছেন সৎ ভাই আব্দুল মাজেদ চৌধুরী।

রিদুয়ানুল হক চৌধুরী সম্রাট জানান,তাদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজিসহ আব্দুল মাজেদ চৌধুরী সি,আর -৩১৩/১৮, সি,আর-৩২৯/০৮,সি,আর-১০৫/৮,সি,আর – ৪৬০/০৯,সি আর -৫৮/০৯,সি আর- ১২৩/১১,সি আর -২৩৪/১৬ বিভিন্ন মিথ্যা ও হয়রানি মূলক মামলা করলে ও বিজ্ঞ আদালত মামলা গুলি সরেজমিনে তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য রামু থানা ও রামু উপজেলা সহকারী কমিশনার ( ভূমি), এবং রামু উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কে নির্দেশ প্রদান করে, কিন্তুু বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাদের তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর এই মিথ্যা মামলা গুলি শুনানি করে কোন তথ্য প্রমাণ না পাওয়ায় বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রামু (১) খারিজ করে দে। তাদেও ক্লান্ত হয়নি এই মামলাবাজ, পূনরায় বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রামু (১) আদালতে সি,আর-৪৫৪/১৯, সি,আর ৩/২১ মামলা দায়ের করেন। রামু ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের অফিসের চর লামার পাড়া এলাকার মৃত সুলতান আহাম্মদ চৌধুরীর দ্বিতীয় স্ত্রী মৃত গোলসোনা বেগমের ৩ ছেলে ৩ মেয়ে সন্তান আছে, তার মধ্যে মৃত মাহমুদুল হক চৌধুরী নিঃসন্তান বিহীন বিগত ২৪ আগস্ট ২০১৮ মৃত বরন করেন। মৃত মাহমুদুলহক চৌধুরী একজন মানসিক ভারসাম্যহীন রোগী ছিল। মরহুম সুলতান আহাম্মদ চৌধুরীর প্রথম স্ত্রী মৃত মেহেরাজ বেগমের নুরুল আনোয়ার চৌধুরী নামে এক সন্তান ছিল, পিতা মৃত সুলতান আহাম্মদ চৌধুরীর মৃত্যুর আগে বিগত ১০ নভেম্বর ১৯৪৭ এ মৃত্যু বরন করে। অথচ এই আব্দুল মাজেদ চৌধুরী প্রথম স্ত্রী মৃত মেহেরাজ বেগমের ছেলে মৃত নুরুল আনোয়ার চৌধুরী প্রকাশ দ্বিতীয় স্ত্রী মৃত গোলসোনা বেগমের ছেলে মানসিক ভারসাম্যহীন মৃত মাহমুদুলহক চৌধুরীকে একই ব্যক্তি বানিয়ে জমি দখল করার জন্য রিদুয়ানুল হক চৌধুরী সম্রাট গং এর বিরুদ্ধে হয়রানি মূলক একের পর এক বিভিন্ন মিথ্যা মামলা করে যাচ্ছে। মৃত নুরুল আনোয়ার চৌধুরী প্রকাশ মাহামুদুল হক চৌধুরী একই ব্যক্তি নন, দুই জন দুই স্ত্রীর সন্তান।

হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলা থেকে প্রতিকার চেয়ে এই মামলাবাজ আবদুল মাজেদ চৌধুরীর বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তার সৎ ভাই ভুক্তভোগী রিদুয়ানুল হক চৌধুরী সম্রাট ও তার পরিবার।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •