ছোটন কান্তি নাথ :

কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম এমএ বলেছেন, বাংলাদেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিশ্বের মানুষের কাছে ব্যাপক আস্থা অর্জন করে নিয়েছে ইসলামী ব্যাংক। ইসলামী শরিয়াহ মেনে পরিচালিত এই ব্যাংকের সেবার মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার যে উদ্যোগ ব্যাংক কর্তৃপক্ষ নিয়েছেন তা বেশ প্রশংসিত।
এমপি জাফর আলম আশা প্রকাশ করে বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা যে আস্থা ও বিশ্বাস রেখে ইসলামী ব্যাংকের এমডি পদে নতুন দায়িত্বপ্রাপ্ত চকরিয়ার কৃতি সন্তান মুহাম্মদ মুনিরুল মওলাকে আগামী পাঁচ বছরের জন্য গুরুদায়িত্ব অর্পণ করেছেন সেই কৃতিত্ব তিনি দেখাবেন। পাশাপাশি ব্যাংকে জলবল নিয়োগের ক্ষেত্রে চকরিয়া ও পেকুয়াসহ কক্সবাজারের চাকরিপ্রার্থীদের বিষয়টি সুদৃষ্টি দিয়ে দেখবেন।
এমপি জাফর আলম ২২ জানুয়ারী রাতে কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরশহরের সিস্টেম চকরিয়া কমপ্লেক্সের ‘বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশ আওয়ামী কর্ণারের’ কনভেনশন হলে আয়োজিত ইসলামী ব্যাংকের চট্টগ্রাম দক্ষিণ জোনের বিশিষ্ট গ্রাহকদের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা এবং দাবিগুলো উত্থাপন করেন।
ইসলামী ব্যাংক চট্টগ্রাম দক্ষিণ জোনের ইভিপি ও জোনপ্রধান মুহাম্মদ ইয়াকুব আলীর সভাপতিত্বে ও ব্যাংকের চকরিয়ার চিরিঙ্গা শাখার ব্যবস্থাপক এভিপি মুহাম্মদ নিজামুল হকের স্বাগত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন ব্যাংকের নবনিযুক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক চকরিয়ার বরইতলীর কৃতি সন্তান মুহাম্মদ মুনিরুল মওলা, সাবেক এমপি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এএইচ সালাহউদ্দিন মাহমুদ, সাবেক পৌরমেয়র আনোয়ারুল হাকিম দুলাল, লামা পৌরসভার মেয়র জহিরুল ইসলাম, চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম লিটু, চকরিয়া ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি রেজাউল হক সওদাগর, চকরিয়া উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি ও সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আজিমুল হক আজিম, অধ্যক্ষ আবু নঈম আজাদ, এজেন্ট ব্যাংকিং সদস্য অধ্যাপক আফসারুজ্জামান, ব্যাংকের এসইভিপি-সিআইডি-২ (জি.এম) মো. গিয়াস উদ্দিন কাদের, এসইভিপি-সিআইডি-১ মো. শাব্বির, ডেভেলপমেন্ট উইং ডিএমডি মো. মোশাররফ হোসেন প্রমূখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি জাফর আলম আরো বলেন, ‘একসময় ইসলামী ব্যাংকের মালিকানা এবং ব্যাংকের কর্মকাণ্ডে কিছু বিতর্ক থাকলেও বর্তমানে তা নেই। বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী এই ব্যাংকটির প্রতি সুদৃষ্টি দিয়ে সত্যিকার অর্থে গণমানুষের ব্যাংক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন ইসলামী ব্যাংকে।
সাবেক এমপি এএইচ সালাহ উদ্দিন মাহমুদ এবং সাবেক পৌরমেয়র আনোয়ারুল হাকিম দুলালের দাবির প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করে এমপি জাফর আলম বলেন, ভৌগলিক কারণে চকরিয়া হচ্ছে বেশ কয়েকটি উপজেলার মোহনা। তাই এখানে শিল্পনগরী গড়তে বিনিয়োগের পাশাপাশি এখানে একটি উন্নতমানের ইসলামী ব্যাংক হাসপাতাল যদি গড়ে তোলা হয় তাহলে আমি জায়গা প্রদান করে সহযোগীতা দেবো। পাশাপাশি চকরিয়ার চিংড়ি চাষিদেরও ঋণ সহায়তা দিয়ে চিংড়ি শিল্পের সমৃদ্ধির জন্য ইসলামী ব্যাংক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আমার বিশ্বাস। এছাড়াও ইসলামী ব্যাংকে নারী গ্রাহকের সংখ্যা যেহেতু বেশি তাই চকরিয়াতে একটি মহিলা শাখাও খোলা যেতে পারে। এজন্য আমি বর্তমান এমডির সুদৃষ্টি কামনা করছি।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করে এবং তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে বক্তব্য শুরু করেন ইসলামী ব্যাংকের নবদায়িত্বপ্রাপ্ত মুহাম্মদ মুনিরুল মওলা। তিনি বলেন, মালিকানা পরিবর্তন হওয়ার পর থেকে ইসলামী ব্যাংক সার্বজনীনতায় রূপ পেয়েছে। বাংলাদেশের অর্থনীতি যেহেতু এখনো কৃষিনির্ভর তাই কৃষিভিত্তিক শিল্পকে প্রাধান্য দেওয়া হবে। এই ব্যাংকের প্রতিটি কর্মীর মধ্যে রয়েছে সততা ও ন্যায়নিষ্টতা। তারা গ্রাহককে সেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে যথেষ্ট আন্তরিকতার সাথে কাজ করে থাকেন।
১৯৭৪ সালে অনুষ্ঠিত ওআইসির সম্মেলনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশে ইসলামী ব্যাংক প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেওয়ার কথা মনে করিয়ে দিয়ে ব্যাংকের বর্তমান এমডি মুনিরুল মওলা আরো বলেন, দীর্ঘবছর থেকে ইসলাম ব্যাংকের প্রতিটি শাখায় প্রতিদিন অসংখ্য গ্রাহক ভিড় করেন। তাদেরকে সেবা দিতে গিয়ে ব্যাংক কর্মীদেরও হিমসিম খেতে হয়। তাই বর্তমানে ইসলামী ব্যাংকের পরিসেবা সরাসরি গ্রাহকদের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার জন্য ইউনিয়ন এবং গ্রামভিত্তিক আউটলেট তথা এজেন্ট ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। এই ব্যবস্থা আগামীতে আরো বৃদ্ধি পাবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •