এম.মনছুর আলম,চকরিয়া :

কক্সবাজারের চকরিয়ায় মাতামুহুরী নদীর পালাকাটাস্থ রাবার ড্যাম পয়েন্টে নৌকা ডুবে
গিয়াস উদ্দিন (৫৫) নামে এক জেলে নিখোঁজ হয়েছে। নিখোঁজের ২৪ ঘন্টা পার হওয়ার পরও এখনো কোন সন্ধান মেলেনি।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে সাতটার দিকে উপজেলার চিরিংগা ইউনিয়নের পালাকাটাস্থ মাতামুহুরী নদীর পয়েন্টে রাবারড্যামের নিচে এ ঘটনা ঘটে।
নিখোঁজ জেলে গিয়াস উদ্দিন উপজেলার উপকূলীয় বদরখালী ইউনিয়নের ৩ নম্বর ব্লকের সিরাজ আহমদের ছেলে।

স্থানীয় এলাকাবাসী ও নিখোঁজের পারিবার সুত্রে জানায়, উপজেলার উপকূলীয় বদরখালী ইউনিয়নের ৩ নম্বর ব্লকের সিরাজ আহমদের ছেলে
গিয়াস উদ্দিন ও নুরুল আবচার মেথি ছোট্ট নৌকায় ঝাঁকি জাল নিয়ে চিরিংগা পালাকাটাস্থ রাবারড্যাম পয়েন্টের নীচে মাতামুহুরী নদীতে মাছ ধরতে যায়। ওইদিন সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার সময় রাবারড্যামের পানির স্রোতে জাল ফেলতে গিয়ে অসাবধান বশত আকস্মিক ভাবে নৌকা উল্টে দুইজনি পানিতে ডুবে যান। নদী থেকে সাঁতার কেটে নুরুল আবচার মেথি নদীর তীরে উঠে আসলেও তার সহপাঠী গিয়াস উদ্দিন (৫৫) নদীতে তলিয়ে যান। নিখোঁজেরর বিষয়টি তাৎক্ষনিক ভাবে পালাকাটাস্থ রাবারড্যামের নিরাপত্তা কর্মীদের অবহিত করা হলে তারা দ্রুত স্থানীয় লোকজনকে সাথে নিয়ে রাবারড্যামের নীচে ঘটনাস্থলে উদ্ধারে নামে।
রাবারড্যামের দায়িত্বরত
কেয়ার টেকার আব্দুর রহিম বলেন, নদীতে জেলে
নিখোঁজের খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক ভাবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মহোদয় ও চকরিয়া ফায়ার সার্ভিসকে জানানো হয়। খবর পেয়ে চকরিয়া থানার পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের লোকজন রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত শত শত উৎসুক জনতা রাবারড্যামে নিখোঁজ জেলের সন্ধানে অপেক্ষামান ছিল। নিখোঁজের ২৪ঘন্টা অতিবাহিত হওয়ার পরও এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নিখোঁজ জেলের এখনো সন্ধান মেলেনি।

চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন, নিখোঁজ জেলে গিয়াস উদ্দিনের এখনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। বিভিন্ন ডুবুরী দল তাকে উদ্ধারে ঘটনাস্থলে কাজ করে যাচ্ছে বলে তিনি জানান।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ শামসুল তাবরীজ জানান, মঙ্গল রাতে রাবারড্যাম পয়েন্টের নীচে মাতামুহুরী নদীতে জেলে নিখোঁজের খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীকে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়। নিখোঁজ ব্যক্তির সন্ধানে উদ্ধার তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। বিষয়টি সার্বক্ষনিক ভাবে পর্যবেক্ষন করছে বলে তিনি জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •