ইমাম খাইর, সিবিএন:
কক্সবাজার সদরের ইসলামাবাদের চরপাড়ায় জমির বিরোধে মা-মেয়েকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।
মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
নিহত দুইজন হলেন- ওই এলাকার আজিজুল হক বাবুর্চির স্ত্রী রাশেদা বেগম (৩২) ও তার মেয়ে জাহানারা ইসলাম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রী জন্নাতুল ফেরদৌস (১৩)।
চরপাড়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের সভাপতি মহিউদ্দিন মৃত্যুর ঘটনা মুঠোফোন সিবিএনকে নিশ্চিত করেছেন।
রিপোর্ট লিখাকালে দুইজনের লাশ সদর হাসপাতাল মর্গে রয়েছে।
মহিউদ্দিন জানান, জমির বিরোধ নিয়ে একই এলাকার জাফর আলমের পুত্র আবুল কালাম (৩৫) এর সাথে ঝগড়া হয়।
তাতে প্রতিপক্ষের কুপাঘাতে ঘটনাস্থলে রাশেদা বেগমের মৃত্যু হয়। মেয়ে জন্নাতুল ফেরদৌসকে উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেয়ার পর ডাক্তার মৃত্যু ঘোষণা করেন।
খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ কিরিচ উদ্ধার করেছে।
অভিযুক্তদের কেউ আটক হয়নি।
তবে, অভিযান চলছে বলে জানা গেছে। ঘাতকরা গাঢাকা দিয়েছে।

ঘটনার পরপরই ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের আইসি মোঃ আবদুল হালিম একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে রয়েছেন। তিনি জানান, আবুল কালামকে ধরতে পুরো এলাকায় তল্লাশী অভিযান শুরু করেছে পুলিশ। অচিরেই তাকে ধরা হবে।

প্রসঙ্গত সম্প্রতি  অপর এক হামলায় একই এলাকার দিনমজুর নুরুল আলম নিহত হয়। এদিকে স্কুল ছাত্রী ও তার  মা কে নির্মমভাবে হত্যার ঘটনায় তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করেন ঈদগাহ জাহানারা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গিয়াস উদ্দিন ও স্কুল কর্তৃপক্ষ। তারা দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্ত শাস্তির দাবী জানিয়েছেন।

অভিযুক্ত আবুল কালাম

এই ন্যাক্কারজনক ঘটনায় এলাকায় ক্ষোভ ও শোক বিরাজ করছে।
স্থানীয়রা জানিয়েছে, মঙ্গলবার সকালে চলাচলের রাস্তা ঘেরা দিয়ে বন্ধ করা নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে বিরোধ হয়।
তবে, আজিজুল হকের দাবি, নিজের ক্রয়কৃত জায়গায় ঘেরা দিতে গেলে বাধা দেয় আবুল কালাম।
বেশ কিছুদিন ধরে জমির বিরোধ চলে আসছিল। কিন্তু স্থানীয় চেয়ারম্যান-মেম্বারের দূর্বল ভূমিকার কারণে খুনের ঘটনাটি ঘটে গেল।
তার জন্য জনপ্রতিনিধিরা কোনভাবে দায় এড়াতে পারে না বলে এলাকাবাসী মনে করছে।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •