অনলাইন ডেস্ক :
‘বাংলাদেশের পাসপোর্ট নিয়ে ৫৫ হাজার রোহিঙ্গা ঢাকা হয়ে রিয়াদ অথবা দাম্মাম হয়ে সৌদি আরবে পৌঁছেছে। এদের পাসপোর্টৈর মেয়াদ না থাকায় বা পাসপোর্ট হারিয়ে যাওয়ায় তাদের তালিকা বাংলাদেশকে দিয়েছে সৌদি আরব। বাংলাদেশের পাসপোর্ট নিয়ে যাওয়ায় সৌদি আরব এদেরকে বাংলাদেশি নাগরিক হিসেবে বিবেচনা করছে।’

রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে রোহিঙ্গা এবং স্থানীয় ৩০ হাজার জনগোষ্ঠীর মাঝে ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠান শেষে সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত ইসা বিন ইউসুফ আল- দুহাইলান রোববার (১৭ জানুয়ারি) এমন মন্তব্য করেন। ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল উপস্থিত ছিলেন।

সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত ইসা বিন ইউসুফ আল- দুহাইলান বলেন, ‘বাংলাদেশের যে সব নাগরিকের কাগজপত্র (পাসপোর্ট) হারিয়ে গেছে বা‌ মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে, এমন ৫৫ হাজার জনের একটি তালিকা আমরা বাংলাদেশকে দিয়েছি। তাদের নতুন পাসপোর্ট কিংবা নবায়ন করা পাসপোর্ট প্রয়োজন। এর মধ্যেই সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশ একটি উচ্চপর্যায়ের কমিটি করে বিষয়টি দেখছে।’

তিনি জানান, জানুয়ারির তৃতীয় সপ্তাহে সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ঢাকা সফর করার কথা ছিল। কিন্তু সৌদি আরবের নতুন পরিস্থিতির কারণে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ঢাকা সফর স্থগিত হয়েছে, শিগগিরই সফরটি হবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘বাংলাদেশি নাগরিক যদি ওইখানে (সৌদি আরব) রোহিঙ্গা ‌হিসেবে গিয়ে থাকে অবশ্যই তাদের পাসপোর্ট না থাকলে আমরা পাসপোর্ট দেব। তারা যদি বাংলাদেশের পাসপোর্ট নিয়ে না যায় আর রোহিঙ্গাই হয়ে থাকে তবে সে সব ক্ষেত্রে বিচার-বিশ্লেষণ করে আমরা সিদ্ধান্ত নেব।’

তিনি আরও বলেন, ‘আপনারা জানেন রোহিঙ্গা সমস্যা নতুন নয়।‌ ৫০-৬০ বছর আগেও রোহিঙ্গারা এসেছে। আর সৌদি আরব এতটাই উদার যে সেই সময় রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছিল। সৌদি আরবের একটা এলাকায় রোহিঙ্গারা থাকে। আমরা সবসময় বলছি, রোহিঙ্গারা বাংলাদেশি নয়, এরা মিয়ানমারের অধিবাসী।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা আমাদের লোকজনকে পাসপোর্ট দিলে তা অবশ্যই নবায়ন করব। কিন্তু মিয়ানমারের অধিবাসী হলে তারা বাংলাদেশি নন।’

প্রতিদিন ঢাকায় কত বাংলাদেশিকে ভিসা দেওয়া হচ্ছে জানতে চাইলে সৌদি রাষ্ট্রদূত জানান, ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে দেড় হাজার ভিসা দেওয়া হচ্ছে। সর্বোচ্চ ছয় হাজার পর্যন্ত দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

– সারাবাংলা

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •