ডেস্ক নিউজ:
নিবার্চনের আগেই সব বৈধ অস্ত্র জমা নিয়ে সন্ত্রাসীদের হাতে থাকা অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে সাড়াশি অভিযান পরিচালনার জন্য প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জানিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি কপোরেশন নিবার্চনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন।

তিনি শুক্রবার (১৫ জানুয়ারী) দুপুরে নগরের ১৬ নং চকবাজার ওয়ার্ডে ধানের শীষের পক্ষে নিবার্চনী গণসংযোগকালে এ দাবি করেন।

বিএনপির এ মেয়র প্রার্থী বলেন, ‘প্রতিটি নিবার্চনের আগে নিয়ম অনুযায়ী সকল বৈধ অস্ত্র জমা নিয়ে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে প্রশাসন তৎপর থাকে। কিন্তু চসিক নিবার্চনে প্রশাসন এখনো পর্যন্ত অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে অভিযান কিংবা বৈধimageঅস্ত্র জমা নেয়া্র কোন ধরণের উদ্যোগ নেয়নি। ফলে প্রতিদিন ক্ষমতাসীন দলের সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের ঝঁনঝনানি, হানাহানি শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে পাঠানটুলি ও বাকলিয়াতে নিজেদের মধ্যে গোলাগুলি ও ছুরিকাঘাতে ২ জন নিহত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার গভীর রাতে নগরীর হালিশহর রামপুর ওয়ার্ডের বড়পুকুর পাড়ে ধানের শীষ প্রতীকের পোষ্টার লাগাতে গেলে যুবলীগ কর্মীরা হামলা চালায়।’

ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, ‘ছাত্রলীগ যুবলীগ সন্ত্রাসীদের হাতে থাকা অবৈধ অস্ত্র সাধারণ ভোটার ও বিএনপি নেতা কমীর্দের মধ্যে ভয়ভীতি ছড়ানোর জন্য ব্যবহার করতে পারে। নিবার্চনের আগে আরও হামলা এবং হতাহতের ঘটনা ঘটার আশঙ্কা সাধারণ ভোটাররা শঙ্কিত। এসব খুনাখুনি বন্ধে ও সাধারণ ভোটার এবং বিরোধী দলের নেতাকমীর্দের জানমালের নিরাপত্তায় অবিলম্বে লাইসেন্স করা অস্ত্র জমা নিয়ে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে সাড়াশি অভিযান পরিচালনার জন্য জোর দাবী জানাচ্ছি।’

তিনি সকালে নগরীর চকবাজার ধনিরপুলস্থ ডিসি রোড়ে মেয়র প্রার্থীর নিবার্চনী কার্যালয় উদ্বোধন করেন। পরে ধনিরপুল থেকে চকবাজার ওয়ার্ডের গণসংযোগ শুরু করে সিরাজউদৌলা রোড়, চন্দনপুরা, গনি বেকারী, কলেজ রোড়, অলি খাঁ মসজিদ মোড়, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ও সেভরন এলাকা, পাঁচলাইশ বড় গ্যারেজ, কাতালগঞ্জ হয়ে তেলিপট্টি মোড় এলাকায় শেষ করেন।

পথসভায় অংশ নিয়ে দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু সুফিয়ান বলেন, ‘ভোট আপনার পবিত্র আমানত। ভোট দেওয়া নাগরিক অধিকার। ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য নির্ভয়ে ভোট কেন্দ্রে আসুন। আপনার ভোট আপনি দেবেন। অবরুদ্ধ গণতন্ত্রকে মুক্ত করতে আপনার রায় দিয়ে যোগ্য প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেনকে নির্বাচিত করতে হবে। তিনি ২৭ জানুয়ারী সকল বাধা-বিপত্তি উপেক্ষা করে প্রতিটি ভোটারকে মূল্যবান রায় ধানের শীষ প্রতীকে প্রদান করদে হবে।’

গণসংযোগে উপস্থিত ছিলেন উত্তর জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ইউনুচ চৌধুরী, মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক কাজী বেলাল উদ্দিন, ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, সদস্য গাজী সিরাজ উল্লাহ, মো. কামরুল ইসলাম, নগর মহিলা দলের সাধারন সম্পাদক জেলী চৌধুরী, পশ্চিম বাকলিয়া ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি মো. সেকান্দর, পূর্ব বাকলিয়া ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি আব্দুল্লাহ আল ছগির, চকবাজার ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি মনজুর আলম মনজু, চকবাজার ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী সালাউদ্দীন কায়সার লাবু, বিএনপি নেতা শফিকুল আলম, ইব্রাহিম বাচ্চু, আমিন মাহমুদ, আবু আহমেদ, অধ্যক্ষ খোরশেদ আলম, ইসমাঈল বাবুল, খায়রুজ্জামান জুনু, পশ্চিম বাকলিয়া ওর্য়াড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাজী মো. এমরান, চকবাজার ওয়ার্ড বিএনপির সাধারন সম্পাদক এম এ হালিম বাবলু, নগর যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক এমদাদুল হক বাদশা, সহ সভাপতি নাছিম চৌধুরী, পশ্চিম বাকলিয়া ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী আরিফুল ইসলাম ডিউক, মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী পারভীন আক্তার চৌধুরী, মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী শামীমা নাসরিন, নগর স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ন সম্পাদক নুরুল আলম শিপু, ওয়ার্ড বিএনপি নেতা হাজী মো: ইউসুফ, জমির উদ্দিন বাবলু, আব্দুল কাদের, আইয়ুব খান, হাফেজ আহমেদ, জসিম উদ্দীন, মো: আলাউদ্দীন, হামিদুল হক, সৈয়দুল আমিন, জাহেদুল হক, রোকন উদ্দৌলা, মো: আজম, মিজানুর রহমান, খালেদ বিন মিঠু, মো: উসমান, মো: আলমঙ্গীর, হাসনাত মাসুদ, মো: ইউসুফ, মেহেদী হাসান, জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •