মোহাম্মদ মুজিবুল ইসলাম:
সাংবাদিকতা জগতে আমার পা বাঁড়ানো আব্বা, জেলার সাংবাদিকতা ও সংবাদপত্র জগতের প্রতিকৃত দৈনিক কক্সবাজার সম্পাদক আলহাজ্ব মোহাম্মদ নুরুল ইসলামের হাত ধরে। আব্বা কক্সবাজার প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতাদের অন্যতম। ছিলেন প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। সেইসূত্রে, এই প্রতিষ্ঠানের সাথে আমার আত্মার সম্পর্ক গড়ে উঠে। অনেক চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে ৪৬ বছর আগে প্রতিষ্ঠিত কক্সবাজার প্রেস ক্লাব আজ এই পর্যায়ে পৌঁছেছে।
১২ জানুয়ারি ২০২১ (মঙ্গলবার) সাধারণ সম্পাদক হিসেবে এই প্রতিষ্ঠানের সাথে আমার নতুন সম্পর্কের সূচনা। এই সম্পর্ক দায়িত্বের। নবনির্বাচিত সভাপতি আবু তাহের ভাই এর নেতৃত্বে কমিটির কাঁধে সুবিশাল দায়িত্ব। সমুদ্র জনপদের অধিবাসীদের মুখপাত্র এ অঞ্চলের সাংবাদিক এবং প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়া গুলো। আর তাঁদের মুখপাত্র এই প্রতিষ্ঠান, কক্সবাজার প্রেস ক্লাব।
দায়িত্বলাভের পর আপনারা যে শুভেচ্ছা-অভিনন্দন ও নিরঙ্কুশ সমর্থনের প্লাবনে আমাদের ভাসিয়েছেন তার মৌখিক প্রতিদান দেয়ার ভাষা আমার জানা নেই। তবুও বলব আমি/আমরা কৃতজ্ঞ, অভিভূত, আপ্লূত। এই মহান দায়িত্বকে পালন করতে চাই আপনাদের সাথে নিয়ে। সাংবাদিক, সংবাদপত্র, হকারসহ প্রেসসংশ্লিষ্ট তথা সংবাদ হাউজগুলোর যাবতীয় ব্যক্তিবর্গ, প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিবিদ, বিশ্বের এক ও অভিন্ন যুদ্ধ কোভিড-১৯ এর ফ্রন্টলাইনার এবং সর্বস্তরের কক্সবাজারবাসীর সহযোগিতাকে সম্বল বানিয়ে আমরা এগুতে চাই, কাজ করতে চাই।
আমাদের লক্ষ্য, কক্সবাজার প্রেস ক্লাবে হবে একটি বহুতল মিডিয়া টাওয়ার যেটি পরিচিত হবে নিরপেক্ষ, স্বচ্ছ ও বিতর্কমুক্ত সাংবাদিকতার কেন্দ্রস্থল। কক্সবাজার প্রেস ক্লাব সামনের দিনগুলোতে দেশের বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতার দৃষ্টান্তমূলক প্রতিনিধি হয়ে থাকবে, এটিই আমাদের লক্ষ্য।
তবে যে লক্ষ্যের সাথে সংশ্লিষ্ট সমগ্র কক্সবাজারবাসী, এই লক্ষ্যে কখনোই এককভাবে সফল হওয়া সম্ভব নয়। চাই আপনাদের দোয়া, ভালোবাসা ও নিঃস্বার্থ সহযোগিতা। সব স্বার্থের উর্ধ্বে থেকে যেন সত্য ও ন্যায়ের পথে কর্মপরিচালনা করতে পারি, সেই সহযোগিতার মাধ্যমে ধন্য করবেন আমাদের।

Md Mujibul Islam -এর ফেসবুক টাইমলাইন থেকে নেয়া।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •