তাজুল ইসলাম পলাশ, চট্টগ্রাম:
প্রায় দশ মাস পর পচার প্রচারনায় সরগরম হয়ে উঠেছে নির্বাচনী মাঠ। গত শুক্রবার চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক প্রচার-প্রচারণা শুরু হলে ৭ মেয়র প্রার্থী ও ২৩৭ জন কাউন্সিলর প্রার্থী জুমার নামাজ শেষে নিজ নিজ এলাকায় উৎসবমুখর পরিবেশে গণসংযোগ শুরু করেন।

শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায় জুমার নামাজ শেষে কবরস্থান ও মাজার জেয়ারতের মাধ্যমে শুরু হয় চট্টগ্রামে ভোটের হাওয়া।

প্রধান দুই মেয়র প্রার্থীসহ (আওয়ামী লীগের এম রেজাউল করিম চৌধুরী ও বিএনপির ডা. শাহাদাত হোসেন ও অন্যান্য কাউন্সিলর প্রার্থীরা এদিন মাঠে নেমে পড়েন।

এদিকে নির্বাচন উপলক্ষে নগরীর অলিগলি ও নগরীর গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সাঁটানো হয়েছে পোস্টার-ব্যানার। ব্যানারে ব্যানারে ছেয়ে গেছে নগরী। নির্বাচন কমিশনের বেঁধে দেয়া সময় অনুযায়ী দুপুর দুইটা থেকে ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে শুরু হয়েছে প্রার্থীদের নামে মাইকিং।

প্রথমদিন নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী ও সমর্থক নিয়ে বিশাল শোডাউন করে প্রচারণা চালিয়েছেন প্রধান দুই দলের প্রার্থীসহ অনেকেই। মেয়রসহ কাউন্সিলর প্রার্থীরা প্রচার-প্রচারণা শুরু করলেও মূলত প্রধান দুই মেয়র প্রার্থী ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের এম রেজাউল করিম চৌধুরী ও বিএনপির মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেনের গণসংযোগ স্থলগুলো ব্যাপক জনস্রোতে পরিণত হয়েছে।

গত বছরের মার্চে মেয়র এবং কাউন্সিলর প্রার্থীরা প্রতীক পাওয়ার পর করোনা মহামারীর কারণে স্থগিত হয়ে যায় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন। প্রায় ১০মাস পর আগামী ২৭ জানুয়ারি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

করোনাকালে চার ওয়ার্ডে চারজন প্রার্থীর মৃত্যুর কারণে ওই ওয়ার্ডগুলোতে নতুন তফসিল ঘোষণা করা হয়। পুরোনো প্রার্থীদের সঙ্গে নতুন করে ছয় প্রার্থী বেড়েছে। গত শুক্রবার প্রতীক পেয়ে মাঠে নেমেছেন তারাও।
পুরোদমে ভোটের মাঠে নেমেছেন ৭ মেয়র ও ২৩৭ জন কাউন্সিলর প্রার্থী।

চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও চসিক নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান জানান, প্রার্থীরা প্রতিদিন দুপুর ২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত একটানা প্রচারণা চালাতে পারবেন। প্রত্যেক ওয়ার্ডে একটি করে মাইক বাজাতে পারবেন বলেও জানান তিনি।

তিনি বলেন, প্রচার-প্রচারণায় আচরণবিধি পর্যবেক্ষণে ১৪ জন ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। সহকারী রিটার্নিং অফিসারের সঙ্গে তারা মাঠ পর্যায়ে দায়িত্ব পালন করবেন।

এদিকে নগরীর ৪১ ওয়ার্ডেও গতকাল সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এবং সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থীরা গণসংযোগ শুরু করেছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •