বার্তা পরিবেশক : রামু উপজেলার ঈদগড়ে সন্ত্রাসীরা একজনকে পিঠিয়ে গুরুতর আহত করে উল্টো আহত যুবকের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসীর স্ত্রীকে বাদী বানিয়ে মিথ্যা নারী নির্যাতন মামলা দেওয়ার হুমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত যুবকের নাম কামাল হোসেন(৩১) সে ঈদগড় চরপাড়া গ্রামের আলী হোসনের পুত্র।
জানা যায় , গত ৯ জানুয়ারি সকাল ৮ টায় ঈদগড় চরপাড়া গ্রামের আলী হোসনের পুত্র কামাল হোসেনকে জাফর ইকবালের দোকানের সামনে প্রকাশ্যে বহিরাগত চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা মারধর করে। এতে সে গুরুতর আহত হয়।আহত কামাল হোসনের আর্তচিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়।
আহত কামাল হোসন জানান , তিনি গত ৭ ফেব্রয়ারী প্রতিরাতের মত হাতির আক্রমণ থেকে রক্ষার জন্য পুর ঘোনা নামক এলাকায় তার ধান ক্ষেতের বীজ তলা পাহারা দিচ্ছিল। ওই রাত সাড়ে ৮ টায় সন্ত্রাসী আলা উদ্দীনের নেতৃত্বে সন্ত্রাসী দল তাকে আাটকিয়ে মারধর ও টানাহেছড়া করে অপহরণ করার চেষ্টা করে। তখন তার চিৎকার শুনে লোকজন এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়।আহত যুবক বিষয়টি স্থানীয় ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বার শহিদুল ইসলামের কাছে বিচার দিলে সন্ত্রাসীরা ক্ষিপ্ত হয়ে গত ৯ জানুয়ারি সকাল ৮ টায় ঈদগড় চড়পাড়া জাফর ইকবালের দোকানের সামনে আলা উদ্দীনের নেতৃত্বে কামাল হোসেনকে ৭ জানুয়ারি রাতের ঘটনা কেন মেম্বার শহিদুল ইসলাম কে বিচার দিয়েছিস বলে ২য় দফা মারধর করে।

সন্ত্রাসী দলের নেতা আলা উদ্দীন বার্মাইয়া। সে বিগত ৩/৪ মাস পুর্বে রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে স্বপরিবারে পালিয়ে এসে ঈদগড়ে বসবাস করছে বলে দাবী করেন আহত কামাল হোসেন। তিনি আরো জানান, আলা উদ্দীন সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ও ইয়াবা ব্যবসায় জড়িত। কামাল হোসেন আরো জানান, সন্ত্রাসীরা তাকে মারধর করে বর্তমানে উল্টো মিথ্যা নারী নির্যাতন মামলা দিয়ে জেলের ভাত খাওয়ানোর হুমকি দিচ্ছে।

আহত কামাল হোসেন কে প্রাথমিক ভাবে ঈদগড় বাজারের পল্লী চিকিৎসক ডাঃ সাহাব উদ্দীনের কাছ থেকে চিকিৎসা নেওয়ার পর অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় কক্সবাজার সদর হাসপাতাল থেকে উন্নত চিকিৎসা নেয়া হয়েছে ।
আজ ১১ জানুয়ারি আহত কামাল হোসেন বাদী হয়ে বার্মাইয়া আলা উদ্দীন গং এর বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেছে। আদালত মামলাটি তদন্তের জন্য রামু থানাকে কে দায়িত্ব দিয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •