মুহাম্মদ আবু বকর ছিদ্দিক :
ইসলামী শিক্ষা-সংস্কৃতির আলোয় নবপ্রজন্মকে আলোকিত করার ব্রত নিয়ে রামু উপজেলার খুনিয়া পালং ইউনিয়নের প্রান্তিক জনপদ দারিয়ারদীঘির মদীনাবাগে নবপ্রতিষ্ঠিত ইসলামী শিক্ষাকেন্দ্র মাদ্রাসা দারুল কোরআনের আনুষ্ঠানিক পথচলা শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার ( ৫ জানুয়ারী) সকাল ৮ টায় নবীন শিক্ষার্থীদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ- উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে নতুন শিক্ষাবর্ষের বই বিতরণের মাধ্যমে নতুন এ দ্বীনি শিক্ষায়তনের আনুষ্ঠানিক অভিযাত্রা সূচিত হয়।
পবিত্র এ আয়োজনে অনলাইনে যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, প্রতিষ্ঠানের স্বপ্নদ্রষ্টা ও প্রধান রূপকার, লেখক ও গবেষক, গ্রন্থ প্রণেতা, বাংলাদেশ ইসলামী শিক্ষা সংস্থার চেয়ারম্যান মাওলানা আব্দুল মাজেদ আতহারী। রামুর এ কৃতি সন্তান তাঁর জন্মভূমি মদীনাবাগে নবপ্রতিষ্ঠিত মাদ্রাসা দারুল কুরআনের লক্ষ্য, উদ্দেশ্য ও প্রয়োজনীয়তার ওপরে আলোকপাত করেন। তিনি বলেন, মদীনাবাগের বায়তুল আমান জামে মসজিদ ও মাদ্রাসা দারুল কুরআনকে কেন্দ্র করে মক্কা-মদীনার সৌরভ প্রতিটি ঘরে, ঘরে ছড়িয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ।
নবপ্রজন্মকে ইসলামী শিক্ষা-সংস্কৃতির আলোয় আলোকিত করার এ পবিত্র উদ্যোগের সাথে সম্পৃক্ত সকল এলাকার সকল দ্বীনি অনুরাগী ব্যক্তিবর্গের ঈমানী দায়িত্ব।
প্রতিষ্ঠানের পরিচালক, তরুণ আলেম মাওলানা হাফেজ শওকত আলীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এ বই বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক ছিলেন, লেখক ও সাহিত্যিক, রামু লম্বরীপাড়া দারুল কুরআন নুরানী একাডেমীর প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক হাফেজ মুহাম্মদ আবুল মঞ্জুর। তিনি বলেন, কোমলমতি সন্তান-সন্ততিদেরকে ইসলামের বুনিয়াদী শিক্ষায় সুশিক্ষিত জনগোষ্ঠী হিসেবে গড়ে তুলতে নূরানী শিক্ষাধারার গুরুত্ব অনস্বীকার্য। এ যুগান্তকারী শিক্ষা ব্যবস্থার কারণে আজ ঘরে ঘরে কুরআন-সুন্নাহর আলো ছড়িয়ে পড়ছে। নবপ্রতিষ্ঠিত মাদ্রাসা দারুল কুরআনের অবদানেও প্রত্যন্ত এ জনপদ সত্যিকার অর্থেই মদীনার আলোকধারায় আলোকিত হবে বলে আমরা আশাবাদী।
মদীনাবাগের প্রবীণ ব্যক্তি জবির আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বই বিতরণ অনুষ্ঠানে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন, প্রধান মুরব্বী, মাদ্রাসার জমিদাতা আব্দুল হাকিম। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন, রামু লেখক ফোরামের সহ-সভাপতি, সাংবাদিক মুহাম্মাদ আবু বকর ছিদ্দিক, লম্বরীপাড়া দারুল কুরআন নুরানী একাডেমীর শিক্ষা পরিচালক মাওলানা দিদারুল আলম। এছাড়াও যুবসমাজের পক্ষে বক্তব্য রাখেন, পাগলিরবিল দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক মুহাম্মদ ওসমান গণি। অনুষ্ঠানে মাদ্রাসার শিক্ষক মাওলানা জাহেদুল ইসলাম, এলাকাবাসীর মধ্যে আব্দুল হাশিম, আসাদ আলী, নুরুল আলম, নুর হোসাইন,শাহআলম, বশির আহমদ, আলী মিয়া,ছাবের আহমদ,ছলিমুল্লাহ বাহাদুর, মোহাম্মদ হোসাইন, নুরুল আমিন, মাহবুব আলম, আবুল হোসাইন, জসিম উদ্দিন, জয়নুল আবেদীন, মাস্টার ওসমান গনি, মিজানুর রহমানসহ শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিবর্গ, যুবসমাজ ও অভিভাবকবৃন্দ স্বতঃস্ফূর্তভাবে শরীক হন।
নবপ্রতিষ্ঠিত এ মাদ্রাসার উত্তরোত্তর সফলতা ও সমৃদ্ধি কামনা করে আল্লাহর দরবারে বিশেষ মুনাজাতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান সমাপ্ত হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •