প্রেস বিজ্ঞপ্তি :

শিক্ষা, শান্তি ও প্রগতির পতাকাবাহী সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সোনার বাংলা বিনির্মাণে অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে। জাতির মুক্তির স্বপ্নদ্রষ্টা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়া, জীবন ও যৌবনের উত্তাপে শুদ্ধ সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। সোনার বাংলা বিনির্মাণের কর্মী গড়ার পাঠশালা বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। বিদ্যার সঙ্গে বিনয়, শিক্ষার সঙ্গে দীক্ষা, কর্মের সঙ্গে নিষ্ঠা, জীবনের সঙ্গে দেশপ্রেম এবং মানবীয় গুণাবলির সংমিশ্রণ ঘটিয়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ অতিক্রম করেছে পথচলার ৭৩ বছর। ১৯৪৮ সালের ৪ জানুয়ারি সময়ের দাবিতেই বাংলাদেশ ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা করেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। সময়ের প্রয়োজন মেটাতেই এগিয়ে চলা বাংলাদেশ ছাত্রলীগের। এই সংগঠন আদর্শবান নেতা গড়ার কারখানা। ছাত্রলীগ থেকেই জন্মনিয়েছে দেশের অসংখ্য সূর্য্য সন্তান। যারা দেশের জন্য কাজ করেছেন। এখন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের উন্নয়নে অন্যতম সহযোগী হিসেবে কাজ করছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। আশাকরি শেখ হাসিনার নেৃতত্বে এগিয়ে যাবে দেশ, এগিয়ে যাবে ছাত্রলীগ। তিনি গতকাল বিকেলে মহেশখালী উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে আয়োজিত ৭৩ বছর পুর্তী অনুষ্ঠানের কর্মসূচী উদ্বোধনকালে এ কথা বলেন। উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হালিমুর রশিদ’র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক পারভেজ আহমদ বাবুর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি’র বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি এম আজিজুর রহমান, রুহুল আমিন ও সাবেক ছাত্রনেতা উপজেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক এহছানুল করিম, ছাত্রনেতা শাহনেওয়াজ, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মোরশেদ, সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসান নানু, ছোট মহেশখালী ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান উল্লাহ, হোয়ানকের সভাপতি এম আরমান, সাধারণ সম্পাদক ফরিদুল আলম, শাকিল আজম ও আজম।

বেলা ১২টায় তিনি মহেশখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্ঠা মাস্টার ইদ্রিস আলমের কবর জিয়ারত করেন এবং মেজবানে শরীক হন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •