আলমগীর মানিক, রাঙামাটি:
মুজিব বর্ষ উপলক্ষে পার্বত্য মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে ও পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের ব্যবস্থাপনায় রাঙামাটিতে চলছে তিন দিনব্যাপী বঙ্গবন্ধু সিএইচটি ডে মাউন্টেনবাইক চ্যালেঞ্জ প্রতিযোগিতা। সোমবার সকালে দূর্গম সাজেক থেকে ১৩০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে রাঙামাটিতে পৌঁছে ১০০ প্রতিযোগী। তারই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার (২৯ ডিসেম্বর) সকালে রাঙামাটি মারী স্টেডিয়াম থেকে প্রতিযোগিরা পুনরায় তাদের প্রতিযোগিতা শুরু করে রাঙামাটি থেকে রওয়ানা দিয়ে দুর্গম আরো ৯০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে বিকেলে বান্দরবান ষ্টেডিয়ামে পৌঁছাবে।

প্রতিযোগিতার শুভারম্ভে উপস্থিত ছিলেন, পার্বত্য সচিব মো. সফিকুল আহম্মদ, রাঙামাটি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অংসুই প্রু চৌধুরী, উন্নয়ন বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ নুরুল আলম নিজামী (অতিরিক্ত সচিব), রাঙামাটির জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশীদ, পুলিশ সুপার মীর মোদাছছের হোসেন, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ সভাপতি এডভোকেট মামুনুর রশিদ মামুন, সাধারণ সম্পাদক সফিকুল আজম প্রমুখ। এসময় প্রতিযোগীদের শুভ কামনা জানান অতিথিরা।

উল্লেখ্য, বঙ্গবন্ধু ট্যুর ডি সিএইচটি এমটিবি চ্যালেঞ্জ প্রতিযোগিতায় দেশের বাছাইকৃত একশ’ সাইক্লিস্ট তিন দিনে তিনশ’ কিলোমিটার পাহাড়ি আঁকা বাঁকা পথ পাড়ি দেবে। উদ্বোধনীর প্রথম দিনে দূর্গম সাজেক থেকে ১৩০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে খাগড়াছড়ি হয়ে রাঙ্গামাটির চিংহ্লামং চৌধুরী মারী স্টেডিয়ামে পৌঁছে ১০০ প্রতিযোগী। মঙ্গলবার (২৯ ডিসেম্বর) সকালে রাঙামাটি চিংহ্লামং চৌধুরী মারী স্টেডিয়াম থেকে সাইক্লিস্টসরা যাত্রা শুরু করে। আর ৯০কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে বান্দরবান ষ্টেডিয়ামে পৌঁছবে প্রতিযোগীরা। পরদিন বান্দরবান থেকে আরো ৮০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে থানচি উচ্চ বিদ্যালয়ে গিয়ে প্রতিযোগিতা শেষ হবে এবং পুরস্কার বিতরণ করা হবে। আগামী ৩০ডিসেম্বর বিকেলে থানচিতে পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণের মাধ্যমে প্রতিযোগিতা সমাপ্ত হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •