অনলাইন ডেস্ক : বাংলাদেশ পুলিশের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) পদে পদোন্নতি পেয়েছেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার (প্রশাসন ও অর্থ) আমেনা বেগম।

রোববার (২৭ ডিসেম্বর) জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো. আলতাফ হোসেন স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

আমেনা বেগমসহ আরও ১১ অতিরিক্ত উপ-মহা পরিদর্শককে পদোন্নতি দেওয়া হয়। তবে গ্রেড ৩ ক্যাটগরিতে তাদের পদোন্নতি দেওয়া হলেও এখনও নতুন কর্মস্থল নির্ধারণ করা হয়নি।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, সুপিরিয়র সিলেকশন বোর্ডের ২৪ ডিসেম্বর তারিখের সভার নিম্নবর্ণিত সুপারিশ প্রধানমন্ত্রী ২৬ ডিসেম্বর সদয় অনুমোদন করেছেন।

ডিআইজি পদে পদোন্নতির সুপারিশ পাওয়া কর্মকর্তারা হলেন- পুলিশ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত ডিআইজি এস এম আক্তারুজ্জামান, মো. হায়দার আলী খান, মো. মনিরুল ইসলাম, মো. মাহবুবুর রহমান ভুইয়া ও মো. রুহুল আমিন, খুলনা রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি মো. হাবিবুর রহমান, ঢাকা মহানগর পুলিশের যুগ্ম পুলিশ কমিশনার মহা. আশরাফুজ্জামান ও বাসুদেব বণিক, চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার আমেনা বেগম, গাজীপুর মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মো. আজাদ মিয়া ও র্যা বের পরিচালক (অতিরিক্ত ডিআইজি) বেগম আতিকা ইসলামকে ডিআইজি পদে পদোন্নতি দেয়া হয়েছে।

আমেনা বেগম চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন শেষে ১৯৯৯ সালে ১৮তম বিসিএসের মাধ্যমে সহকারী পুলিশ সুপার পদে বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিসে যোগদান করেন।

২০ বছর চাকরি জীবনে কাজ করেছেন দেশের বিভিন্ন জায়গায়। পুলিশ সুপার পদে দায়িত্ব পালন করেছেন রাঙ্গামাটি ও নরসিংদী জেলায়। দায়িত্ব পালন করেন সিএমপির উপ-কমিশনার (উত্তর) হিসেবেও।

তিনি কর্মজীবনে দক্ষতার পরিচয় দিয়ে ২০১৫ সালে পেয়েছেন পুলিশের সর্বোচ্চ পদক ‘বাংলাদেশ পুলিশ মেডেল (বিপিএম) সেবা’। ২০১৯ সালে কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ পেয়েছেন ‘আইজি গুড সার্ভিস মেডেল’। দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিদেশের মাটিতেও তুলে ধরেন বাংলাদেশকে। ২০০৯ সালে নির্বাচিত হন ইন্টারন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন অব ওমেন পুলিশ’র এশিয়া রিজিয়ন কো-অর্ডিনেটর। দুই মেয়াদে ২০১৫ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন ওই দায়িত্বে। আন্তর্জাতিক নারী পুলিশের বার্ষিক সম্মেলন এশিয়ান ওমেন পুলিশ কনফারেন্সে কো-অর্ডিনেটরের দায়িত্ব পালন করেন আমেনা বেগম।

এছাড়া তিনি ২০১৮ সালে দুই বছরের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশ পুলিশ ওমেন নেটওয়ার্কের সভাপতি। পূর্ব তিমুরে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে কাজ করেছেন তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •