মোঃ নিজাম উদ্দিন, চকরিয়া:
‘বন্যপ্রাণী প্রকৃতির অংশ। প্রকৃতিকে বাঁচাব আগামী প্রজন্মের জন্য’ স্লোগানে আসুন প্রকৃতিক পরিবেশ রক্ষায় বনাঞ্চল, বন্যপ্রাণী ও হাতি সংরক্ষণ করি। কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের ফাঁসিয়াখালী রেঞ্জের আয়োজনে চকরিয়া ও লামা সীমান্ত ষ্টেশন গুলিস্থান বাজার এলাকাতে জনসচেতনতায় আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শনিবার বিকেল ৪ টায় ফাঁসিয়াখালী রেঞ্জ কর্মকর্তা মাজাহারুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও চেয়ারম্যান আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন লামা ফাঁসিয়াখালী ইউপি চেয়ারম্যান জাকের হোসাইন মজুমদার, ডুলাহাজারা ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ ফাঁসিয়াখালী সামাজিক বনায়নের সহ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী, চকরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি এম জাহেদ চৌধুরী, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারী পার্কের সহকারী তত্বাবধায়ক ও বন্যপ্রাণী বিশেষজ্ঞ মাজাহারুল ইসলাম চৌধুরী, বাঁকখালী রেঞ্জ কর্মকর্তা সরওয়ার জাহান, লামা রেঞ্জ কর্মকর্তা নূর-ই আলম।
সভায় বক্তরা বলেন, হাতির আবাসস্থল ও খাবার সংকট সৃষ্টি হয়েছে মানুষের কারণে। তাই বন্যহাতি লোকালয়ে হানা দেয়ায় মানুষ-হাতি দ্বন্দ্ব চলছে। এতে নিজ স্বার্থ চরিতার্থ করতে বনাঞ্চল ধ্বংসকরার পাশাপাশি হাতি হত্যা করছে দুষ্কৃতিকারীরা। এ দ্বন্দ্ব নিরশন না হলে হাতিসহ বন্যপ্রাণী বিলুপ্ত হয়ে যাবে, পরিবেশের হবে মারাত্মক ক্ষতি। পরে পরিবেশ ও হাতি রক্ষা নিয়ে সচিত্র ভিড়িও ফুটেজ প্রদর্শণ করেন। এ ভিড়িও দেখে অভিভুত হন পাহাড়ী এলাকার কয়েকশত বাসিন্দা।
এসময় ডুলাহাজারা বিট কর্মকর্তা মো. ইলিয়াছ হোসাইনের সঞ্চলনায় আরো উপস্থিত ছিলেন, লামা ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি নূর হোসাইন চৌধূরী, সাংবাদিক মো. সাইফুল ইসলাম খোকন, মো. নিজাম উদ্দিন, ইআরটি সদস্য ফরিদুল আলম, রিংভং বিট কর্মকর্তা আবুল হোসেন, মানিকপুর বিট কর্মকর্তা মো. সাইফুর রহমান, ফরেষ্টার কামরুজ্জামান সহ বনবিভাগের লোকজন। জনসচেতনতা সভায় জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও কয়েক’শ স্থানীয় জনসাধারণ উপস্থিত ছিলেন।