ডেস্ক নিউজ:
উগান্ডা ও কঙ্গো গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র সীমান্তের লেক আলবার্টে নৌকাডুবিতে ২৬ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। ঝোড়ো বাতাসের কারণে নৌকাডুবির ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় অন্তত ২১ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। নৌকাটিতে কয়েক ডজন যাত্রী ছিল। সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

গত বুধবার উগান্ডার এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যাচ্ছিল নৌকাটি। যাত্রাপথে ঝোড়ো বাতাসের কবলে পড়ে এটি ডুবে যায়। তবে নৌকাটিতে উগান্ডা ও কঙ্গো উভয় দেশের মানুষ ছিলেন বলে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা জানিয়েছেন।

হঠাৎ বাতাসের গতিবেগ পরিবর্তন ও যথাযথ নিরাপত্তা ব্যবস্থা না থাকায় লেক আলবার্টে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটে বলে বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানান উগান্ডার নৌবাহিনীর কর্মকর্তা স্যামুয়েল ওনিয়াঙ্গো।

বার্তা সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস জানিয়েছে, করোনাভাইরাসের কারণে উগান্ডা ও কঙ্গো সীমান্তে কড়াকড়ি থাকায় অবৈধভাবে লেক আলবার্টের নৌপথ ধরে অনেকেই যাতায়াত করেন। এই নৌকাডুবির ঘটনায়ও বেশ কয়েকজন কঙ্গো থেকে উগান্ডা ফিরছিলেন।

আফ্রিকার সপ্তম বৃহৎ এই লেকে প্রায়ই দুর্ঘটনায় মানুষের মৃত্যুর খবর জানা যায়। ২০১৪ সালে ধারণক্ষমতার বেশি যাত্রী নিয়ে একটি লঞ্চডুবে গেলে আড়াইশর বেশি শরণার্থীর মৃত্যু হয়। ২০১৬ সালে ক্রিসমাসের সময় উগান্ডার একটি ফুটবল দলের ৩০ সদস্যসহ একটি নৌকা ডুবে যায়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •