মোহাম্মদ হোসেন, হাটহাজারী:
হাটহাজারীর পাহাড়ী এলাকায় ব্রোকলি (সবুজ ফুলকপি) চাষের ভালো ফলন হয়েছে। শহরের কিছু ব্যবসায়ী তাদের পাহাড়ী এলাকায় তাদের উচৃ জমি গুলো ব্রোকলি করে নিজেদের উদ্যোগে ভালো ফলন করেছেন।
বাংলাদেশের জন্য একটি নতুন কপি গোত্রের সবজি। এ দেশে যেখানে সেখানে ব্রোকলি চাষ না থাকায় বাংলাদেশের লোকের কাছে অপরিচিত ও অপ্রচলিত সবজি ছিল। কিন্তু বর্তমানে এটা লাভজনক হিসেবে দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে এবং সবার কাছে সমাদৃত বটে। উপজেলার বিভিন্ন পাহাড়ী এলাকার উচু জমিতে এ সবজির ভালো ফলন হয়ে থাকেন। তবে শহরে সবজিটি চাহিদা সব চেয়ে বেশি। ব্রোকলির উৎপত্তি ইতালিতে।
ইতালি ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এটি সর্বাধিক জনপ্রিয়। উচু জমিতে চাষ করলে ব্রোকলি ফলন ভালো হয়ে থাকে।
ব্রোকলি দেখতে ফুলকপির মতই। তবে রংটা সবুজ। এর বর্ণ সবুজ বলে অনেকেই এক সবুজ ফুল কপি বলে।
চাইনিজ খাবারের ব্যবহৃত অন্যতম প্রধান উপকরণ এই সবজী। এ দেশে অধিকাংশ লোকের কাছে ব্রোকোলি এখনো তেমন পরিচিত নয়।
ব্যবসায়ী নুরুল আবছার বলেন, বাণিজ্যিক ভাবে লাভবান হওয়ার জন্য ব্রোকলি রোপন করিনি। নিজেদের খাবার এবং ফলনের সম্ভাবনা আছে কিনা দেখার জন্য ব্রোকলি বীজ রোপন করেছিলাম।
বিদেশে গিয়ে সবজিটি চাহিদা দেখে আমি আমার জমি গুলোতে সখ করে বীজ রোপন করছি। জমিতে ফলন ও হয়েছে ভালো।
আগামিতে ব্রোকলি সবজিটি বাণিজ্যিকভাবে চাষ করব।
সাধারণভাবে যে ধরনের জলবায়ুতে ফুলকপির চাষ হয় সেখানে ব্রোকলিও ভাল জন্মে।
তবে ব্রোকলির পরিবেশিক উপযোগিতার সীমা একটু বেশি বিস্তৃত৷ পানি জমে না এরূপ উঁচু জমি, উর্বর দোআঁশ মাটি হলে ফলন ভালো পাওয়া যায়। ব্রোকলির গাছ ১৫-২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় সবচেয়ে ভাল জন্মে৷ ব্রোকলি এপ্রিল মাসের পরেও ভালো ফলন দিতে পারে। দেশের সব অঞ্চলেই ব্রোকলি চাষ করা যেতে পারে। সেচ ও পানি নিষ্কাশনের সুবিধা আছে এমন জমি ব্রোকলি চাষের জন্য নির্বাচন করতে হবে। ব্রোকলির সফল চাষের জন্য মাটিতে যথেষ্ট পরিমাণে জৈবসার থাকা প্রয়োজন। পাহাড়ের পাশে উচু জমি গুলোতে ব্রোকলি চাষ হয়ে থাকে। তবে সেচ ও পানি নিষ্কাশনের সুবিধা আছে এমন জমি ব্রোকলি চাষের জন্য নির্বাচন করতে হবে।
হাটহাজারী আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্রে প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মোক্তিদির বলেন, সুস্বাদু সবজি ব্রোকলি এ দেশে প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে। চাষীরা আমাদের পরামর্শগুলো কাজে লাগাতে পারলে ব্রোকলি চাষ করে লাভবান হওয়া কোনো ব্যাপারও না।
তিনি বলেন, ইউরোপ দেশের রুচিশিল সবজি হিসেবে বেশ পরিচিত ব্রোকলি সবজি বাংলাদেশের ফুলকপির মতো এটি অনেকেই বলে থাকেন (সবুজ ফুলকপি)। বাণিজ্যিকভাবে চাষ করলে চাষীরা ভালো ফলন হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •