আবুল কালাম, চট্টগ্রাম :

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি ও চসিক প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন বলেছেন, বৈশ্বিক করোনা মহামারির দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় বেসরকারি হাসপাতাল ক্লিনিকগুলোতে কোভিড কর্ণার চালু ও পর্যাপ্ত আইসিইউ শয্যা নিশ্চিত করতে হবে।
তিনি হাসপাতালে রোগী ভর্তিকালে তাদের এটেনডেন্ট বা অভিভাবকদের চিকিৎসার ব্যয়ভার সম্পর্কে অবহিত করার পাশাপাশি অতিরিক্ত কোন বিল না করতে চট্টগ্রামের বেসরকারি হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার ওনার্স এসোসিয়েশনের কর্মকর্তা ও মালিকদের অনুরোধ জানিয়েছেন। প্রশাসক

সোমবার (২১ ডিসেম্বর) দুপুরে চট্টগ্রাম প্রাইভেট হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার ওনার্স এসোসিয়েশনের কর্মকর্তা ও মালিকদের সাথে মতবিনিময়কালে একথা বলেন।

এসময় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশেনের সচিব আবু শাহেদ চৌধুরী, প্রশাসকের একান্ত সচিব মুহাম্মদ আবুল হাশেম, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী, ম্যাক্স হসপিটালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও চট্টগ্রাম প্রাইভেট হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার ওনার্স এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ডা. লিয়াকত আলী খান, ক্লিনকি ওনার্স এসোসিয়েশনের ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এ টি এম রেজাউল করিম, মেট্রোপলিটন হসপিটালের মেডিকেল ডিরেক্টর ডা. কাউসার আলম, শেভরণ এর জেনারেল ম্যানেজার পুলক পারিয়াল, ইপিক হেলথ কেয়ার’র পরিচালক ডা.মো.এনামুল হক, সিএসসিআর এর জিএম এস এম মাহবুবুল হক, পার্কভিউ হসপিটালের মেডিকেল ডিরেক্টর ডা.আহমেদ রহিম. ম্যাক্স হসপিটালের ম্যানেজার অসিত দে, ন্যাশনাল হসপিটালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. মো. ইউসুফ, নির্বাহী পরিচালক ডা.আলম নুর উপস্থিত ছিলেন।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত গুরুতর ও মুমূর্ষু রোগীদের চিকিৎসাসেবার ক্ষেত্রে আইসিইউ শয্যা নিশ্চিতের পাশাপাশি ‘রেমডেসিভির’ এন্টিভাইরাল ড্রাগের মূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখতে প্রাইভেট হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার ওনার্স এসোসিয়েশনের কর্মকর্তা ও মালিকদের আহ্বান জানিয়ে বলেন, সব রোগী সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা পাবেন না। সরকারি পর্যায়ে অতিরিক্ত রোগীর পাপের কারণে চিকিৎসাসেবার সীমাবদ্ধতা আছে। তাই চিকিৎসকসমাজকে তাদের পেশাগত দায়িত্বের পাশাপাশি মানবিক দিক বিবেচনায় জনস্বার্থে এগিয়ে আসতে হবে। প্রশাসক প্রাইভেট হাসপাতাল মালিকদের করোনার প্রথম দিকের সময়ের মতো কোন রোগীকে করোনা সন্দেহে হাসপাতালে ভর্তি না করার মত অমানবিক কাজ থেকে বিরত থাকতে বলেন।

তিনি জনস্বাস্থ্য সুরক্ষায় চিকিৎসক সমাজকে সরকারের পাশে থাকার উদাত্ত আহ্বান জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •